প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘হজের টাকা দিয়ে ঘাটতি পূরণের চিন্তা সরকারের’ : আবু ইউসুফ

মারুফ হাসান নাসিম : হজে টাকা দিয়ে সারাবছরের ঘাটতি পূরণ করার চিন্তা সরকারের। বাংলাদেশ সরকার যদি চায় বিমান ভাড়া এক লক্ষের বেশি নিবে না তাহলে তা করা সম্ভব। কিন্তু তারা তা চিন্তা করে না। বাংলাদেশ বিমান ও সৌদি বিমান হজ যাত্রী বহন করে তাই তারা যা বলছেন তাই আমাদের মেনে নিতে হচ্ছে। নতুন ভাবে আবারো হজযাত্রীদের বিমান ভাড়া বৃদ্ধির ব্যাপারে আলাপকালে মারিয়া ওভারসীস হজ্জ্ব এজেন্সির ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু ইউসুফ আমাদের অর্থনীতিকে এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আন্তর্জাতিকভাবে যেসব বিমানগুলো যাত্রী বহন করে, তারা একে অপরের সাথে প্রতিযোগিতা করছে। তারা যদি চায় তাহলে হজের জন্য বিমান ভাড়া এক লক্ষের মধ্যে রাখা সম্ভব। তবে সব বিমানের জন্য যদি হজযাত্রী বহন করার সুযোগ থাকতো, তাহলে তাদের পক্ষে এই সিন্ডিকেট করা সম্ভব হতো না। ভারত, পাকিস্তান ও মালয়েশিয়া আমাদের চেয়ে অনেক কম খরচে হজযাত্রী বহন করে। সৌদি আরব থেকে মালয়শিয়া আমাদের থেকে অনেক দুরে হওয়ার পরেও মালয়শিয়া অনেক কম খরচে হজযাত্রী বহন করে। হ্যাব থেকে অনেকবার বলার পরেও সরকার এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। তারা অজুহাত দিচ্ছেন তেল ও ডলারের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে তাই বিমান ভাড়া বাড়তি দিতে হবে। সরকার যদি আন্তরিকভাবে চিন্তা করতো যে তারা হাজীদের সেবা দিবে তাহলে তারা এমনটা করতো না।

তিনি আরো বলেন, সারা বছর তারা কৃষিক্ষেত্র, গার্মেন্টসসহ আরো অনেক ক্ষেত্রে ভর্তুকী দিয়ে থাকে তবে আমি এটাকে ভর্তুকী বলবো না, তারা যদি অতিরিক্ত লাভের চিন্তা করতো তাহলেও হজযাত্রীদের এতো ভাড়া গুনতে হতোনা। সরকার এখানে ব্যবসা করছে। বাংলাদেশ থেকে যে ১ লক্ষ ২৭ হাজার হজ্জ যাত্রী যাচ্ছে সেখানে অর্ধেক যাত্রী বাংলাদেশ বিমান বহন করে আর বাকী যাত্রী সৌদি বিমান বহন করে। আমাদের নির্বুদ্ধিতার কারণে এর অর্ধেক টাকা সৌদি সরকার নিয়ে যাচ্ছে। এখানে তো বাংলাদেশের জনগণ ভুক্তভোগি।

সম্পাদনা : খন্দকার আলমগীর হোসাইন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত