প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বর্তমান শিক্ষাব্যবস্থা
জাতিকে মেরুদন্ডহীন পঙ্গু পরিণত করা সময়ের ব্যাপার: গোলাম মাওলা রনি

প্রিন্স মাহামুদ আজিম : মেডিকেল, ইঞ্জিনিয়ারিং থেকে শুরু করে প্রাইমারী স্কুলের প্রশ্নপত্র যদি ফাঁস হয়। তাহলে এই শিক্ষাব্যবস্থা জাতিকে মেরুদন্ডহীন পঙ্গু জাতিতে তৈরি করা এখন সময়ের ব্যাপার।

টিভিএনএ’কে দেওয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানান আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য গোলাম মাওলা রনি।

সাবেক এই সাংসদ বলেন, বাঁশ দিয়ে ব্রিজ তৈরি করে তার উপর রেলগাড়ি তুলে দেওয়া যতটা না ভয়াবহ তার থেকে বেশী ভয়াবহ শিক্ষার্থীদের মধ্যে প্রশ্ন ফাঁসের মাধ্যমে পরিক্ষা দেওয়ার মানসিকতা সৃষ্টি করা।

তিনি বলেন, শিক্ষা বিভাগে অতিতে দুর্নীতি হলেও এতটা মহামারী আকারে দেখা যায়নি। কিন্তু বর্তমানে শিক্ষার প্রতিটা ক্ষেত্রে ভয়ঙ্কর সব দুর্নীতি দৃশ্যমান হচ্ছে। এই শিক্ষা ব্যবস্থা জাতিকে সম্পূর্ণভাবে পঙ্গু, বিধ্বস্ত এবং ভয়ঙ্কর করে তুলবে।

গোলাম মাওলা রনি বলেন, সরকার ক্ষমতায় আসার পর শিক্ষাব্যবস্থাকে দুইটি ভাগে বিভক্ত করে। প্রথমত শিক্ষার মান নয় বরং স্বাক্ষরতার হার বাড়ানো সরকারের উদ্দেশ্য।দ্বিতীয় ধাপে শিক্ষার মান উন্নয়ন করা।কিন্তু সরকার শিক্ষার দ্বিতীয় ধাপে কিভাবে যাবে তা এখনো স্পষ্ট নয়।

আওয়ামী লীগের সাবেক সংসদ সদস্য বলেন, ঐতিহ্যগতভাবে ব্রিটিশ ব্যবস্থায় আমরা শিক্ষালাভ করে আসছি।রাতারাতি শিক্ষা ব্যবস্থায় সৃজনশীল পদ্ধতি, পাঠ্যবইয়ে নতুন করে যে সকল বিষয় অন্তভুক্ত করার মাধ্যমে ব্যাপক পরিবর্তন আনা হয়েছে সেটা শিক্ষার্থীরা যতটা গ্রহণ করতে পেরেছে ততটা অভিবাবকদের বর্জন করতে হয়েছে। কারন অভিবাবকরা এখনো প্রাচীন পদ্ধতিতে অভ্যস্ত।

গোলাম মাওলা রনি বলেন, শিক্ষা ব্যক্তি ও সামাজিক শৃঙ্খলার মানসিকতার সৃষ্টির ক্ষেত্রে চুম্বকের মত কাজ করে। পরিবার, সমাজ ও দেশের মধ্যে যে ব্যাপারগুলো পরস্পরের সাথে সাংঘর্ষিক একজন সুশিক্ষিত নাগরিক সেটাকে সঠিকভাবে পরিচালনার মাধ্যমে সমাধান করে। কিন্তু শিক্ষা যখন কুশিক্ষা হয় তখন সমাজের সাংঘর্ষিক ব্যাপারগুলোতে সংঘর্ষ আরও বেড়ে যায়। যার ফলে পরিবার, সমাজ, রাষ্ট্র আরও অস্থির হয়ে উঠে।বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে এই জাতীয় সমস্যাটি প্রতীয়মান হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত