প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ড. কামালের সঙ্গে ফখরুলের সাক্ষাৎ
খালেদা জিয়ার মামলা নিয়ে আলোচনা

তারেক :বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মামলায় সরাসরি যুক্ত না হলেও আইনি পরামর্শ দেবেন দেশের শীর্ষস্থানীয় আইনজীবী ড. কামাল হোসেন। কারাবন্দি খালেদা জিয়ার প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করে পরোক্ষ আইনি পরামর্শ দিতেও সম্মত হয়েছেন তিনি। এজন্য রায়ের একটি অনুলিপিও রেখেছেন। তবে দীর্ঘদিন থেকে ফৌজদারি মামলায় না লড়া ও আদালতে নিয়মিত না হওয়ার কারণ দেখিয়ে খালেদা জিয়ার পক্ষে সরাসরি মামলা লড়তে অপারগতা প্রকাশ করেন ড. কামাল হোসেন।

গতকাল বেলা ১১টার দিকে খালেদা জিয়ার দুই আইনজীবী আবদুর রেজাক খান ও আমিনুল ইসলামকে নিয়ে ড. কামাল হোসেনের মতিঝিলস্থ চেম্বারে সাক্ষাৎ করতে যান বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। সেখানে তারা এক ঘণ্টা আলাপ-আলোচনা করেন।

বিএনপির দায়িত্বশীল সূত্রে জানা গেছে, গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেন ও বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর পারস্পরিক কুশল বিনিময় করেন। এরপর ড. কামাল হোসেনকে খালেদা জিয়ার মামলার বিষয়ে বিস্তারিত অবহিত করেন তার আইনজীবী আবদুর রেজাক খান। একপর্যায়ে খালেদা জিয়ার পক্ষে আইনি লড়াই ও আইনি পরামর্শ দেয়ার জন্য ড. কামাল হোসেনকে অনুরোধ জানান বিএনপি মহাসচিব।

এ সময় খালেদা জিয়ার প্রতি সহানুভূতি প্রকাশ করেন প্রবীণ এ আইনজীবী ও রাজনীতিক। তিনি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট মামলার রায়ের একটি অনুলিপিও রাখেন। তবে, দুইটি কারণে তিনি সরাসরি এ মামলায় লড়তে অপারগতা প্রকাশ করেন। তিনি জানান, অনেক দিন ধরেই ফোজদারি মামলা পরিচালনা করেন না তিনি।

এ ছাড়া আদালতেও তিনি অনিয়মিত। ড. কামাল হোসেন বিএনপি চেয়ারপারসনের আইনজীবীদের প্রতি শুভ কামনা জানিয়ে বলেন, উনারা প্রত্যেকেই অভিজ্ঞ আইনজীবী। তিনি বিএনপি মহাসচিবকে পরামর্শ দিয়ে বলেন, খালেদা জিয়ার আইনজীবীদের মধ্যে সংশ্লিষ্ট বিষয়ে অভিজ্ঞ আইনজীবীরা রয়েছেন। ধৈর্য্য ধরে ও সমন্বয়ের মাধ্যমে তারা এ মামলায় লড়তে পারেন। এ মামলায় তার সশরীরে যুক্ত হওয়া জরুরি নয়, তবে পরোক্ষভাবে প্রয়োজনে আইনি পরামর্শ দেবেন তিনি। পেশাদার হিসেবে তিনি আইনি পরামর্শের ক্ষেত্রে কৃপণতা করবেন না।

বিএনপির সংশ্লিষ্ট সূত্রটি জানায়, ড. কামাল হোসেনের পরামর্শ ইতিবাচক এবং এতে তারা আশ্বস্ত হয়েছেন। এই মামলায় দেশের শীর্ষ স্থানীয় কয়েকজন আইনজীবীর কাছে খালেদার জিয়ার পক্ষে আইনি সহায়তা চেয়েছে বিএনপি। খালেদা জিয়ার পক্ষে গত রোববার হাইকোর্টে আইনি লড়াইয়ে যুক্ত হন সাবেক দুই এটর্নি জেনারেল ব্যারিস্টার রফিক-উল হক ও এএফ হাসান আরিফ।

এদিকে খালেদা জিয়ার আইনজীবী আবদুর রেজাক খান বলেন, ড. কামাল হোসেন একজন পেশাদার ও অভিজ্ঞ আইনজীবী। খালেদা জিয়ার মামলায় আইনগত পরামর্শের জন্য আমরা তার কাছে গিয়েছিলাম। মামলার বিষয়বস্তু সম্পর্কে তাকে আমরা অবহিত করেছি। তাকে আমরা মামলার কিছু নথিপত্রও দিয়ে এসেছি। অবসরে এগুলো তিনি দেখবেন। এ সময় ড. কামাল হোসেনের চেম্বারে গণফোরামের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সুব্রত চৌধুরী ছিলেন।

তিনি বলেন, বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও খালেদা জিয়ার আইনজীবী আবদুর রেজাক খান স্যারের (ড. কামাল হোসেন) কাছে এসেছিলেন। তারা কিছুক্ষণ কথাবার্তা বলেছেন। খালেদা জিয়ার আইনজীবী হিসেবে স্যারকে আইনি লড়াইয়ের জন্য অনুরোধ করেছিলেন। তবে, স্যার তাদের জানিয়েছেন যে, তিনি এখন ফৌজদারি মামলা করেন না। আদালতেও নিয়মিত যান না।

এ ছাড়া আবদুর রেজাক খানকে স্যার বলেছেন, খালেদা জিয়ার মামলায় আইনি লড়াইয়ের জন্য তারাই (খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা) যথেষ্ট। তারা একেকজন অভিজ্ঞ আইনজীবী। সুব্রত চৌধুরী জানান, সাক্ষাতের একপর্যায়ে খালেদা জিয়ার প্রতি সহানুভূতি ও তার আইনজীবীদের শুভকামনা জানান ড. কামাল হোসেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, গণফোরাম সভাপতি ড. কামাল হোসেনের সঙ্গে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর সাক্ষাতের সময় আইনি বিষয়ের পাশাপাশি দেশের সার্বিক রাজনৈতিক বিষয়ে আলাপ করেন। মানবজমিন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত