প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বনি কাপুরের পাসপোর্ট জব্দ করেছে দুবাই পুলিশ, তৃতীয় দফায় জিজ্ঞাসাবাদ

বিনোদন ডেস্ক: বলিউড তারকা শ্রীদেবীর মৃত্যুর ঘটনা তদন্তে স্বামী বনি কাপুরের পাসপোর্ট জব্দ করেছে দুবাই পুলিশ। চলছে তৃতীয়দফায় তদন্ত। ইতোমধ্যে শ্রীদেবীর মরদেহ দেশে আনার বিষয়টিও স্থগিত অবস্থায় রয়েছে।

সেসঙ্গে, আইনি জটিলতায় তার মরদেহ দেশে নিয়ে যাওয়ার ছাড়পত্র পেতে দেরি হচ্ছে বলেও পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

এর আগে, দুর্ঘটনাবশত বাথটাবের পানিতে ডুবে বলিউড তারকা শ্রীদেবীর মৃত্যু হয়েছে বলে দুবাই পুলিশ প্রকাশিত ময়নাতদন্ত প্রতিবেদনে জানানো হয়। প্রতিবেদনটি এরইমধ্যে শ্রীদেবীর পরিবার এবং দুবাইয়ের ভারতীয় কনস্যুলেটে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে, এ ঘটনায় আইনি প্রক্রিয়া সম্পন্ন করতে বিষয়টি দুবাই পাবলিক প্রসিকিউশনের কাছে স্থানান্তর করা হয়েছে।মঙ্গলবার তার মরদেহ দেশে পৌঁছানোর কথা থাকলেও এখনো মেলেনি ছাড়পত্র।

শনিবার রাতে দুবাইয়ের একটি হোটেলের বাথটাবে অচেতন অবস্থায় শ্রীদেবীকে পাওয়া যায় বলে তার পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়।

পরে হাসপাতালে নেয়ার পর তাকে মৃত ঘোষণা করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক।

এদিকে শোকে কাতর পুরো ভারত। জনপ্রিয় তারকা শ্রীদেবীর মৃত্যুর খবর জানার পর রোববার তার বাড়ির সামনে ভিড় করেন ভক্তরা।

একজন ভক্ত বলেন, ‘আমরা সবাই তাকে খুব ভালবাসি এবং সম্মান করি। অবশ্যই তাকে আরো একবার শেষবারের মত দেখতে চাই।’

আরেকজন বলেন, ‘তিনি এই ইন্ডাস্ট্রির প্রথম নারী সুপারস্টার। তার এভাবে অকালে চলে যাওয়া সত্যিই খুব কষ্টের। আমরা তার আত্মার শান্তির জন্য প্রার্থনা করছি।’

শ্রীদেবীর আকস্মিক মৃত্যুতে বলিউডজুড়ে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। কেউই যেন মেনে নিতে পারছেন না তার এই চলে যাওয়া।

কমল হাসান বলেন, ‘তিনি তার কাজের প্রতি নিষ্ঠাবান ছিলেন। আমি তাকে খুবই পছন্দ করতাম। গত মাসে আমার সঙ্গে দেখা হয়েছিল। বিদায় নেয়ার সময় আমরা একে অন্যকে জড়িয়ে ধরেছিলাম। এটা আমার জন্য স্মৃতি হয়ে থাকবে।’

রজনীকান্ত বলেন, ‘আমি শ্রীদেবীকে ৪০ বছর ধরে চিনি। আমরা একসাথে সিনেমা করেছি। কেউ তার জায়গা নিতে পারবে না। তিনি আমাদের কাছে অমর হয়ে থাকবে। আমি আত্মার শান্তির জন্য প্রার্থনা করছি এবং তার পরিবারে প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছি।

এরইমধ্যে শ্রীদেবীর মরদেহ মুম্বাই নিয়ে আসতে একটি প্রাইভেট জেট দুবাই পৌঁছেছে। হাসপাতাল ও বিমানবন্দরের বিভিন্ন আনুষ্ঠানিকতা শেষ করে শ্রীদেবীর মরদেহ তার আন্ধেরির লোখান্ডওয়ালা এলাকার বাসায় নিয়ে যাওয়া হবে। শেষকৃত্যের আগ পর্যন্ত তাঁর মরদেহ এখানেই থাকবে।

সম্প্রতি ননদের ছেলে মোহিত মারওয়ারের বিয়ে উপলক্ষে দুবাই যান শ্রীদেবী। তার সঙ্গে ছিলেন স্বামী বনি কাপুর ও মেয়ে খুশি। শনিবার মধ্যরাতে দুবাইয়ের হোটেলে আকস্মিক হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যান তিনি। যদিও পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে তার হৃদযন্ত্রে কখনো কোন সমস্যা ছিল না।

শ্রীদেবীর জন্ম ১৯৬৩ সালের ১৩ আগস্ট। তিনি একই সাথে তামিল, তেলেগু, হিন্দি, মালায়লাম এবং কন্নড় সিনেমায় কাজ করেছেন। ‘তোফা’, ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’, ‘সাদমা’ ও ‘চাঁদনি’সহ অসংখ্য জনপ্রিয় ছবিতে অভিনয় কোরে দর্শক মনে জায়গা করে নেন তিনি। ফিল্মফেয়ার ছাড়াও ২০১৩ সালে গুরুত্বপূর্ণ রাষ্ট্রীয় সম্মাননা ‘পদ্মশ্রী’তে ভূষিত হন কিংবদন্তী এ অভিনেত্রী।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত