প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নভেম্বরে মার্কিন নির্বাচনে রাশিয়া সাইবার হামলা চালাতে পারে: গভর্নররা শঙ্কিত

নূর মাজিদ: আগামী মধ্যবর্তী মার্কিন নির্বাচনে নাগরিকদের দেয়া ভোটের গণতান্ত্রিক অধিকার বিদেশী শক্তির প্রভাবে ক্ষুন্ন হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন মার্কিন গভর্নরগন।

আমেরিকার দুই বৃহৎ রাজনৈতিক দল ডেমোক্রেট এবং রিপাবলিকান উভয় দলের প্রাদেশিক শাসনকর্তারা এই বিষয়ে তাদের গভীর উদ্বেগ ও শঙ্কার কথা জানিয়েছেন। তারা বলেন, মাত্র এক বছর আগেই রাশিয়ান গুপচরেরা প্রায় ২০ টি রাজ্যের প্রাদেশিক নির্বাচনী ফলাফলকে লক্ষ্য করে সাইবার হামলা চালিয়েছিলো, যে সম্পর্কে এখন পর্যন্ত ট্রাম্প প্রশাসন কোন কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহন করেনি।

শীর্ষ মার্কিন গোয়েন্দা কর্মকর্তাদের মতে, আগামী নভেম্বরের নির্বাচনের ফলাফলকে প্রভাবিত করার লক্ষ্যে এখন থেকেই রাশিয়ান হ্যাকাররা প্রস্তুতি চালিয়ে যাচ্ছে। এই নির্বাচনের ফলাফল সংসদের নিম্নকক্ষ কংগ্রেস এবং উচ্চকক্ষ বা স্টেট হাউজে ক্ষমতার ভারসাম্য নির্ধারণ করবে।

রোড আইল্যান্ড প্রদেশের ডেমোক্রেট দলীয় গভর্নর জিনা রডম্যান বলেন, ‘আমার সারা জীবনে এমন ভয়ানক পরিস্থিতির মুখোমুখি আমি কোনদিন হইনি’। তিনি আরো অভিযোগ করেন, সবচাইতে বড় সমস্যা হলো আমাদের এমন একজন প্রেসিডেন্ট রয়েছেন যিনি এই হুমকির মোকাবেলা দূরে থাক, এই সঙ্কটের অস্তিত্বকে পর্যন্ত অস্বীকার করেন। এটা বিশ্বাস করা অসম্ভব যে, তারা আগামী মধ্যবর্তী নির্বাচনকে এই হুমকি থেকে সুরক্ষা দিতে কোন কার্যকরী পদক্ষেপ গ্রহণ করবে।

মধ্যবর্তী নির্বাচনকে সামনে রেখে অসংখ্য প্রচারনা ও সমালোচনার ছায়ায় বর্তমানে মার্কিন রাজনীতি ও গণমাধ্যম মুখরিত। গত বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডোনাল্ড ট্রাম্প রাশিয়ান হ্যাকারদের সহায়তায় নির্বাচনকে প্রভাবিত করার মাধ্যমে ক্ষমতায় আসেন বলে অভিযোগ করেছিলো এফবিআই।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের ১ বছরের অধিক মেয়াদকালে আলোচিত-সমালোচিত সমস্ত ইস্যুতে দুই মেরুতে অবস্থান করলেও নির্বাচনী নিরাপত্তা নিয়ে রিপাবলিকান ও ডেমোক্রেট উভয় দলের নির্বাচিত প্রতিনিধিরাই তাদের গভীর উদ্বেগের কথা বিভিন্ন সময় জানিয়ে আসছেন। নিউ ইয়র্ক টাইমস

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত