প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খালেদা জিয়া হচ্ছেন রাক্ষসী মা : হাছান মাহমুদ

জিয়াউদ্দিন রাজু: কর্ণেল অলির বক্তব্যের সূত্র ধরে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক এবং দলের অন্যতম মুখপাত্র ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপির নেত্রী খালেদা জিয়া অবশ্যই আমার মায়ের বয়সী। অনেকে তাকে মা ডাকতে পারেন তবে তিনি হচ্ছেন রাক্ষসী মা, এতিমের টাকা আত্মসাৎকারী মা।

সোমবার জাতীয় প্রেসক্লাবে বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোট আয়োজিত ‘বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আলমগীর কুমকুমের ৬ষ্ঠ মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে’ এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া যেভাবে টাকা আত্মসাৎ করে জেলে গেছেন এটি বিএনপির জন্য যেমন লজ্জার, রাজনীতিবিদদের জন্যও লজ্জার এবং অপমানের। সুতরাং তার এমন পরিনতি কাম্য নয়।

আওয়ামী লীগের এ নেতা বলেন, খালেদা জিয়াকে কারাগারে যে সব সুযোগ সুবিধা দেওয়া হচ্ছে বাংলাদেশের ইতিহাসে কোন কারাবন্দী এমন সুযোগ সুবিধা পায়নি। কেউ ডিভিশন পেলেও তার পছন্দের গৃহপরিচারিকা রাখার সুযোগ নেই, কিন্তু খালেদা জিয়া পছন্দনীয় গৃহপরিচারিকাকে সাথে রাখার সুযোগ পেয়েছেন। ডিভিশন পাওয়ার আগেই তাকে শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষ, পাশে বসার কক্ষ, রান্না কক্ষ এমনকি তিনি যেন সব ধরনের বিনোদন থেকে বঞ্চিত না হন সেজন্য টেলিভিশনে ডিশ সংযোগও দেওয়া হয়েছিল। এতো সুযোগ সুবিধা পাওয়ার পরও বিএনপির পক্ষ থেকে নানা ধরনের অপপ্রচারের প্রচেষ্টা চালানো হয়েছিল।

উচ্চ আদালতে খালেদা জিয়ার জামিন আবেদন প্রসঙ্গে সাবেক বন ও পরিবেশ মন্ত্রী হাছান মাহমুদ বলেন, বাংলাদেশের হাইকোর্ট সরকারের বিরুদ্ধে বহু রায় দিয়েছে, সরকারের এমপিদের বিরুদ্ধে রায় দিয়েছে এবং হাইকোর্টে সরকারের মন্ত্রীরা করজোড়ে দাড়িয়ে থাকতে বাধ্য হয়েছে। সেই হাইকোর্টেও বিএনপি হাঙ্গামা করার চেষ্টা করেছে। আদালত কক্ষে তারা এমন পরিস্থিতি তৈরী করেছিল যে হাইকোর্টের বিচারপতি আদালত কক্ষ ত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছিলেন। পরিস্থিতি অনুকূলে আসার পর বিচারপতিগণ আবার এজলাসে বসেছিলেন। হাইকোর্টের বিচারপতিদের বাধ্য করার চেষ্টা করা হয়েছিল নিম্ন আদালতে যে ভাবে হাঙ্গামা করেছে হাইকোর্টেও তারা একই ধরনের হাঙ্গামা করার অপচেষ্টা চালিয়েছিল।

আয়োজক সংগঠনের উপদেষ্টা লায়ন চিত্ত রঞ্জন দাসের সভাপতিত্বে উপস্থিত ছিলেন, সাবেক সংসদ সদস্য সারাহ বেগম কবরী, অভিনেতা এটিএম সামসুজ্জামান, আওয়ামী লীগ নেতা বলরাম পোদ্দার, বঙ্গবন্ধু সাংস্কৃতিক জোটের সাধারণ সম্পাদক অরুন সরকার রানা প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত