প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্যাংক খাতের মূল সমস্যা সুশাসনের অভাব: ইব্রাহীম খালেদ

আনোয়ার হোসেন: ব্যাংকিং খাতের মূল সমস্যা সুশাসন। তাই মূল সমস্যাকে পাশ কাটিয়ে অন্যান্য বিষয় আলোচনা করে কোনো লাভ নেই। ব্যাংকে এখন গবেষণার পাশাপাশি কিছু এ্যাকশন দরকার।

রবিবার রাজধানী মিরপুরে বাংলাদেশ ইনিস্টিটিউট অব ব্যাংক ম্যানেজমেন্ট (বিআইবিএম) এ অনুষ্ঠিত রিচার্জ এলামনাক অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক ডেপুটি গভর্ণর ড. খন্দকার ইব্রাহীম খালেদ এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, গবেষণা হয় সংস্কার বা ব্যাংকগুলো ভালো ভাবে পরিচালনার জন্য। কিন্তু ব্যাংকগুলো যে ভালো ভাবে চলছে না; সেটি অস্পষ্ট থেকে যাচ্ছে। আমরা সেই অস্পষ্টতা চাই না। রোগ সারানোর জন্য প্রেসক্রিপশন দেয়া হয়। আমরা ব্যাংকের রোগ নিরাময়ে সেই প্রেসক্রিপশন দিলাম। কিন্তু সেই প্রেসক্রিপশন এক জায়গায় গিয়ে আটকে যাচ্ছে। আমরা আশা করি ব্যাংক এবং সরকার সেই বিবেচনা করবে।

অনুষ্ঠানে তিনটি ভিন্ন ভিন্ন সেশনে ১৯টি গবেষণা পেপার উপস্থাপন করা হয়। গবেষণা পেপারের মধ্যে রয়েছে, এজেন্ট ব্যাংকি, গৃহ ঋণ, ব্যাংকিং চ্যানেলে রেমিটেন্স, এসএমই, বাংলাদেশে পিপিপি, নতুন বাণিজ্যিক ব্যাংকের মুল্যায়নের মত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়। এ সময় ব্যাংক এশিয়ার এমডি আফরান আলী হোম লোন সম্পর্কে বলেন, এটি একটি দীর্ঘ মেয়াদী বিষয়। তাই কোন ব্যাংক যদি বেশী পরিমাণ গৃহ ঋণ প্রদান করে। তাহলে তারা সমস্যায় পড়তে পারেন।

তিনি এজেন্ট ব্যাংকিং সম্পর্কে বলেন, এর অগ্রগতিটা এখন দৃশ্যমান। কম সুদে ঋণ পাওয়ায় এর মাধ্যমে কৃষকরা উপকৃত হচ্ছেন। জার্মানিতে দেখা যায়, গাড়ি নিয়ে প্রতিনিধিরা টাকা বিতরণ করছে। আর আমরা এজন্টে ব্যাংকিংয়ের মাধ্যমে এই পদ্ধতিটা অনেক আগেই শুরু করেছি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিধির বক্তব্যে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগের ভারপ্রাপ্ত সচিব মুসলিম চৌধুরী বলেন, আমরা বিশ্বব্যাপি অর্থ ব্যবস্থার একটি অংশ। যেখানে ব্যবসার মূল কাঁচামাল হচ্ছে অর্থ। যা অত্যধিক ঝুঁকিপূর্ণ। তাই আমাদের গবেষনার প্রতি আরো বেশি মনোনিবেশ করতে হবে। যাতে, কর্মক্ষেত্রে দায়িত্বশীল ও বুদ্ধিমান আচরণ নিশ্চিত করা যায়।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ ব্যাংকের ডেপুটি গভর্ণর এস এম মনিরুজ্জামান, বিআইবিএম এর মহাপরিচালক তৌফিক আহমেদ চৌধুরী, বিআইবিএম এর প্রফেসর হেলাল আহমেদ চৌধুরী, প্রফেসর ইয়াসিন আলী, রুপালী ব্যাংকের এমডি আতাউর রহমান, প্রাইম ব্যাংকের এমডি আহমেদ কামাল খান, সোনালী ব্যাংকের সাবেক এমডি এস এ চৌধুরী প্রমুখ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত