প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রায়না, ভুবনেশ্বরের নৈপুণ্যে সিরিজ ভারতের

স্পোর্টস ডেস্ক:  জয় দিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা সফর শেষ করল ভারত। ওয়ানডের পর সীমিত ওভার ক্রিকেটের আরেক সংস্করণ টি-টোয়েন্টিতেও সিরিজ জিতেছে অতিথিরা।

সুরেশ রায়না ও শিখর ধাওয়ানের ব্যাটে লড়াইয়ের পুঁজি পাওয়া ভারত পায় নাটকীয় জয়। জেপি দুমিনির ফিফটি আর অভিষিক্ত ক্রিস্টিয়ান ইয়াঙ্কারের টর্নেডো ইনিংস যথেষ্ট ছিল না দক্ষিণ আফ্রিকার জন্য।

তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ৭ রানে জিতেছে ভারত। এই জয়ে ২-১ ব্যবধানে সিরিজ ঘরে তুলেছে অতিথিরা। ১৭৩ রানের লক্ষ্য তাড়ায় ৬ উইকেটে ১৬৫ রান করে দক্ষিণ আফ্রিকা।

ম্যাচ শুরুর আগেই বড় একটা ধাক্কা খায় ভারত। পুরোপুরি ফিট না থাকায় সিরিজ নির্ধারণী ম্যাচে হারায় নিয়মিত অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে।

ছবি: বিসিসিআই ছবি: বিসিসিআই কেপ টাউনের নিউল্যান্ডসে শনিবার টস হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুতেই বিদায় নেন ভারপ্রাপ্ত অধিনায়ক রোহিত শর্মা। দ্বিতীয় উইকেটে ধাওয়ানের সঙ্গে ৬৫ রানের জুটিতে দলকে মোমেন্টাম এনে দেন রায়না। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান ২৭ বলে করেন ৪৩ রান।
মনিশ পান্ডে, হার্দিক পান্ডিয়া ফিরেন দ্রুত। রান আউট হয়ে বিদায় নেন ওপেনার ধাওয়ান। বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান ৪০ বলে করেন ৪৭ রান। শেষের দিকে মহেন্দ্র সিং ধোনি, দিনেশ কার্তিকের ছোট ছোট অবদানে লড়াইয়ের পুঁজি পেয়ে যায় ভারত।

৩৫ রানে ৩ উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার সেরা বোলার জুনিয়র ডালা। ক্রিস মরিস ২ উইকেট নেন ৪৩ রানে।

রান তাড়ায় শুরুটা ভালো হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকার। তৃতীয় ওভারে ফিরে যান রিজা হেনড্রিকস। রানের জন্য সংগ্রাম করতে হয় ডেভিড মিলার ও দুমিনির। দশম ওভারে তারা বিচ্ছিন্ন হওয়ার সময় দলের রান মাত্র ৪৫। নিজের প্রথম তিন ওভারে মাত্র ১৩ রান দেন পেসার ভুবনেশ্বর কুমার।

২৩ বলে ২৪ রান করে ফিরে যান মিলার। সময়ের দাবি মেটাতে পারেননি বিস্ফোরক বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান। আগের দিন ঝড় তোলা হাইনরিখ ক্লাসেন ফিরেন দ্রুত।

পঞ্চাশ ছোঁয়ার পর ফিরে যান দুমিনি। ৪১ বলে খেলা অধিনায়কের ৫৫ রানের ইনিংসটি গড়া তিনটি ছক্কা ও দুটি চারে।

ছবি: বিসিসিআই ছবি: বিসিসিআই শেষ চার ওভারে স্বাগতিকদের দরকার ছিল ৬৪ রান। মরিসের দ্রুত বিদায়ে কাজটা আরও কঠিন হয়ে যায়। ফারহান বেহারডিনের সঙ্গে দারুণ জুটিতে দলকে লড়াইয়ে রাখেন ইয়াঙ্কার। মাত্র ৩.৩ ওভারে দুই জনে ষষ্ঠ উইকেটে গড়েন ৫১ রানের জুটি।
শেষ ওভারে জয়ের জন্য প্রয়োজন ছিল ১৯ রান। সেই ওভারে ভুবনেশ্বর দেন কেবল ১১ রান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে নিজের প্রথম ইনিংসে ২৪ বলে ৪৯ রান করে শেষ বলে ফিরেন ইয়াঙ্কার।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:

ভারত: ২০ ওভারে ১৭২/৭ (রোহিত ১১, ধাওয়ান ৪৭, রায়না ৪৩, পান্ডে ১৩, পান্ডিয়া ২১, ধোনি ১২, কার্তিক ১৩, প্যাটেল ১*, ভুবনেশ্বর ৩*; মরিস ২/৪৩, ডালা ৩/৩৫, দুমিনি ০/২২, ফেলুকওয়ায়ো ০/২৬, শামসি ১/৩১, ফাঙ্গিসো ০/১৩)

দক্ষিণ আফ্রিকা: ২০ ওভারে ১৬৫/৬ (হেনড্রিকস ৭, মিলার ২৪, দুমিনি ৫৫, ক্লাসেন ৭, ইয়ঙ্কার ৪৯, মরিস ৪, বেহারডিন ১৫*; ভুবনেশ্বর ২/২৪, বুমরাহ ১/৩৯, ঠাকুর ১/৩৫ পান্ডিয়া ১/২২, রায়না ১/২৭, প্যাটেল ১/১৬)

ফল: ভারত ৭ উইকেটে জয়ী

সিরিজ: তিন ম্যাচের সিরিজে ২-১তে জয়ী ভারত

ম্যান অব দ্য ম্যাচ: সুরেশ রায়না

ম্যান অব দ্য সি সিরিজ: ভুবনেশ্বর কুমার

সূত্র : বিডিনিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ