প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাকিস্তান সুপার লিগে জয় পেল তামিমের পেশাওয়ার জালমি

এম এ রাশেদ: পাকিস্তান সুপার লিগের নবাগত দল মুলতান সুলতানসের কাছে প্রথম ম্যাচে হেরেছিল পেশাওয়ার জালমি। দলের সঙ্গে ব্যর্থ ছিলেন তামিম ইকবালও। তবে দ্বিতীয় ম্যাচে জ্বলে উঠলেন তিনি এবং জিতলো পেশাওয়ার। শনিবার ইসলামাবাদ ইউনাইটেডকে ৩৪ রানে হারাতে ইনিংসের দ্বিতীয় সেরা স্কোর করেন বাংলাদেশি ওপেনার।

শনিবার ইসলামাবাদ টস জিতে ব্যাট করতে পাঠায় পেশাওয়ারকে। কামরান আকমলের সঙ্গে শুরু থেকে মারকুটে ছিলেন তামিম। অবশ্য পাকিস্তানি ওপেনার তার চেয়ে এগিয়ে ছিলেন।

ইনিংসের দ্বিতীয় বলেই মোহাম্মদ সামিকে চার মারেন তামিম। পরের চারটি বলে কোনও রান নেননি বাঁহাতি ব্যাটসম্যান। এরপর ২.৫ ওভার স্ট্রাইকিং প্রান্তে কেবল ছিলেন কামরান। নিজের সপ্তম বলে আন্দ্রে রাসেলকে পেয়েই ছয় মারেন তামিম। বাংলাদেশি ওপেনার আরও একটি করে চার ও ছয় হাঁকান। ১৩তম ওভারে রাসেলের স্লোয়ার ডেলিভারিতে শাদাব খানকে ক্যাচ দেন তামিম।

২৯ বলে দুটি করে চার ও ছয়ে ইনিংসের দ্বিতীয় সেরা ৩৯ রান করেন বাংলাদেশের ২৮ বছর বয়সী ব্যাটসম্যান। কামরান তার সঙ্গে ৬৯ রানের উদ্বোধনী জুটি গড়েন। আউট হওয়ার আগে তামিম ৫২ রান যোগ করেন ডোয়াইন স্মিথের সঙ্গে।

ইনিংস সেরা ৫৩ রান করেন কামরান। সমান ৩০ রান করেন স্মিথ ও মোহাম্মদ হাফিজ। এই চারজনের ব্যাটে ২০ ওভারে ৬ উইকেটে ১৭৬ রান করে পেশাওয়ার।

জয়ের লক্ষ্যে নেমে ইসলামাবাদ শুরুতেই উমাইদ আসিফের তোপে পড়ে। ৩৩ বছর বয়সী ডানহাতি পেসার তার প্রথম দুই ওভারেই জোড়া আঘাত করেন তাদের ব্যাটিং লাইনআপে। মাত্র ২৫ রানে ৪ উইকেট হারায় ইসলামাবাদ।

এরপর ইবতিসাম শেইখের লেগব্রেক গুগলিতে আরও ভেঙে পড়ে রুম্মান রইসের দল। পেশাওয়ারের ১৯ বছর বয়সী এ স্পিনার তার টানা তিন ওভারে নেন ৩ উইকেট। এই ব্যাটিং ব্যর্থতার দিনে ইসলামাবাদের পক্ষে হাফসেঞ্চুরি করেন ফাহিম আশরাফ। ৫৪ রানে অপরাজিত ছিলেন তিনি। ২০ ওভারে ৯ উইকেটে ১৪২ রান করে ইসলামাবাদ।

উমাইদ ৪ ওভারে ২৩ রান দিয়ে নেন ৪ উইকেট। ইবতিসাম পেয়েছেন ৩টি।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত