প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিরল রোগী আব্বাসের বায়োপসি সম্পন্ন

আহমেদ ইসমাম : মালিবাগের ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজে এন্ড হসপিটালে ভর্তি মাদারীপুরের বিরল রোগী আব্বাস শেখের বায়োপসি সম্পন্ন করানো হয়েছে। শনিবার সকাল বারটায় এ বায়োপসি সম্পন্ন করা হয়।
বায়োপসি সম্পর্কে আব্বাসের চিকিৎসায় নিয়োজিত সার্জিক্যাল টিমের সদস্য সহযোগী অধ্যাপক ডা. একেএম রুহুল আমীন বলেন, আব্বাসের বায়োপসি সম্পন্ন করা হয়েছে। বায়োপসি রিপোর্টের ফল পেতে সাধারণত তিন থেকে পাঁচ দিন লাগবে। বায়োপসি ছাড়াও কিছু কিছু আব্বাসের রিপোর্ট হাতে এসেছে। যেগুলো আমরা নিরক্ষণ করছি । বায়োপসি পেলেই আব্বাসের চিকিৎসার বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেব।

বায়োপসি শেষে আব্বাসকে দেখতে ১০০১ নং কেবিনে হাসপাতালটির সিইও অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. এমএ আজিজ আসেন। এসময় তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আব্বাসের শরীর থেকে যে দুর্গন্ধ বের হতো তা আর অনেকটা কমে গেছে। আব্বাসকে আগের থেকে একটু স্বাভাবিক মনে হচ্ছে। আমরা ধারণা করছি ওর শরীরে ভিটামিন, আইরন কম আছে। আমরা আব্বাসকে শুরু থেকেই সুষম খাদ্য দিচ্ছি। আব্বাসের রোগ নির্ণয়ের কিছু কিছুু রিপোর্ট হাতে এসেছে। তার ফলাফল নেতিবাচক। তবে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাতে হলে বায়োপসি রিপোর্টের ফল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হবে।
এদিকে গ্রামের বাড়িতে আব্বাসের প্রতিবন্ধী বোন শয্যাশায়ী শারমিন আক্তার ও প্রতিবন্ধি ফুফু শয্যাশায়ী ইসমত আরার চিকিৎসা করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে নয়টায় আবাস শেখের চিকিৎসার জন্য ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল লিমিটেডের সার্জারী বিভাগ বিভাগীয় প্রধান মে: জে: (অব) অধ্যাপক ডা. এমএ বাকীকে সার্জিক্যাল ৬ সদস্যের টিমের প্রধান করে টিম গঠন করে।পাশাপাশি আব্বাসের প্রতিবন্ধী বড় বোন সয্যাশায়ী শারমীন আক্তার ও ফুফু প্রতিবন্ধী শয্যাশায়ী ইসমত আরার চিকিৎসার দায়িত্ব নেবার ইচ্ছা পোষণ করেন প্রতিষ্ঠানটির সিইও স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদের (স্বাচিপ) কেন্দ্রীয় কমিটির মহাসচিব অধ্যাপক ডা. এমএ আজিজ।

শুক্রবার বিকালে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল লি: এর চিফ ইক্সিকিউটিভ অফিসার (সিইও) অধ্যক্ষ ডা. এমএ আজিজ আব্বাসকে দেখতে আসেন। এসময় আব্বাস চিকিৎসায় নিয়োজিত সার্জিক্যাল টিমের সাথে কথা বলে শনিবার সকালে বায়োপসি করানো সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এর আগে গত সোমবার ও মঙ্গলবার (১৯ ও ২০ ফেবুয়ারি, ২০১৮) বিরল রোগে আক্রান্ত আব্বাসকে নিয়ে বেশ কয়েকটি গণমাধ্যমের প্রকাশিত সংবাদ প্রতিষ্ঠানটির চিফ ইক্সিকিউটিভ অফিসার (সিইও) অধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. এম এ আজিজ স্যারের নজরে আসে। এসব সংবাদ দেখার পর বিরল রোগে আক্রান্ত মাদারীপুরের রাজৈর উপজেলার ১৩ বছরের কিশোর আব্বাস শেখের চিকিৎসার দায়িত্ব নেবার ইচ্ছা পোষণ করেন । আব্বাসের বোন।

নির্দেশনা পেয়ে হাসপাতালের পক্ষ থেকে আব্বাস শেখের বাবা রাজ্জাক শেখের সাথে যোগাযোগ করা হয়। সামগ্রিক বিষয় জানার পর রাজ্জাক শেখ আব্বাসকে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটালে লি : দেওয়া চিকিৎসা সেবার সুযোগ গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত জানান। বুধবার সাড়ে তিনটায় রাজ্জাক শেখ আব্বাসকে নিয়ে ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হসিপিটালে আসলে প্রথমে জরুরি বিভাগ ও পরে সার্জারী বিভাগে ভর্তি করা হয়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত