প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

উ.আয়ারল্যান্ডের ‘গর্ভপাত আইন’ নারীদের অধিকার ক্ষুণ্ন করেছে: জাতিসংঘ

সান্দ্রা নন্দিনী: আইনের মাধ্যমে গর্ভপাত নিয়ন্ত্রণের মধ্যদিয়ে নারীদের অধিকার খর্ব করছে উত্তর আয়ারল্যান্ড। আর এভাবে মূলত সেখানকার নারীদেরকে একটি ‘ভয়ানক পরিস্থিতি’র সামনে ফেলে দেওয়া হচ্ছে। জাতিসংঘের নারীর প্রতি সকল প্রকার বৈষম্য বিলোপ কমিটি(সিডাও) শুক্রবার তাদের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য তুলে ধরে।

 

প্রসঙ্গত, উত্তর আয়ারল্যান্ডের আইন অনুযায়ী সেখানে গর্ভপাত সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ এবং আইন লঙ্ঘনকারীর বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থার বিধান রয়েছে।

 

প্রতিবেদনটিতে, উল্লেখিত আইন সংশোধন করে গর্ভপাতকারী নারী বা কিশোরী এবং একইসাথে গর্ভপাতে সহায়তাকারীদের দোষী সাব্যস্ত করে, তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন বন্ধের জোরালো দাবি জানানো হয়। এতে বলা হয়, ধর্ষণের ফলে গর্ভবতী হয়ে পড়লে অথবা যেসব ক্ষেত্রে নারীর শারীরিক বা মানসিক ঝুঁকির সম্মুখীন হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে এবং একইসাথে যেখানে ভ্রুণের গুরুতর ক্ষতির আশঙ্কা থাকে, সেসব পরিস্থিতিতে গর্ভপাতকে অবশ্যই বৈধতা দিতে হবে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, উত্তর আয়ারল্যান্ডের হাজার হাজার নারী ও কিশোরীর জন্য চরম অনিশ্চত পরিস্থিতি তৈরি করা হয়েছে। কেননা, গর্ভপাত এমন একটি কার্যক্রম যা কেবল নারীকেই নিতে হয়। আর এ আইনের ফলে নারী সেবিষয়ক সিদ্ধান্ত নিতে বাধা দিচ্ছে। যা কিনা একজন নারীকে ভয়ানক পরিস্থিতির সম্মুখীন করে তুলছে।

এদিকে, প্রতিবেদনটির প্রতিক্রিয়ায় যুক্তরাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, উত্তর আয়ারল্যান্ডে নারীদের অধিকার খর্বকারী এধরণের আইন দেশটি কখনই মেনে নেবে না।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের জুন মাস থেকে উত্তর আয়ারল্যান্ডের নারীরা বৈধভাবে এবং বিনা খরচে ইংল্যান্ড, স্কটল্যান্ড ও ওয়েলসে এসে গর্ভপাত করাতে পারেন। রয়টার্স

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত