প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রোহিঙ্গা তালিকায় ঘাটতি থাকলে মিয়ানমার গ্রহণ করবে কিনা সংশয়

ফারমিনা তাসলিম: বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের তালিকায় ঘাটতি থাকলে মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ গ্রহণ করবে কিনা এই নিয়ে সংশয় রয়েছে। তালিকা তৈরির কাজ আন্তর্জাতিক মানসম্মতভাবে হচ্ছে না বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। আংশিক তথ্য সম্বলিত এ তালিকা আরো জটিল ও দীর্ঘায়িত করে তুলবে প্রত্যাবাসন শুরুর প্রক্রিয়া।

১৬ ফেব্রুয়ারি মিয়ানমারের কাছে ১৬৭৩ পরিবারের ৮ হাজার ৩২ জন রোহিঙ্গার তালিকা দিয়েছে বাংলাদেশ। এগুলো যাচাই-বাছাই শেষে প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়া শুরু করবে মিয়ানমার। কিন্তু ওদের পক্ষ থেকে এখনও কোন সবুজ সংকেত আসেনি। উল্টো বাংলাদেশে এখনোও রোহিঙ্গারা আসছে।

মিয়ানমার প্রথমে পরিবারভিত্তিক ও পরে অঞ্চলভিত্তিক রোহিঙ্গাদের নিবন্ধিত তালিকা পাঠানোর প্রস্তাব দেয়। প্রাথমিকভাবে পালিয়ে আসা রোহিঙ্গাদের একক তালিকা তৈরি শুরু করে বাংলাদেশ। সেই সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসে, ২০টি তথ্য সম্বলিত ফরম পাঠায় মিয়ানমার। যার অধিকাংশ পূরণ করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

এসব ফরমে তথ্য ঘাটতি থাকলে মিয়ানমার গ্রহণ করবে কি না সংশয় রয়েছে। কারণ প্রথম ধাপে একক ভিত্তিতে বায়োমেট্রিক নিবন্ধন করা হয়েছিল যাতে রোহিঙ্গারা বাংলাদেশের পাসপোর্ট তৈরি করতে না পারে। কিন্তু এটি প্রত্যাবাসন প্রক্রিয়ায় সাথে খাপ খাবে না বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

রোহিঙ্গাদের ফেরাতে হলে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদ থেকে মিয়ানমারের জন্য বাধ্যতামূলক প্রস্তাব গ্রহণ করা ছাড়া বিকল্প দেখছেন না বিশ্লেষকেরা। সূত্র : ইনডিপেনডেন্ট টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত