প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাংলাদেশ ক্রিকেটের উন্নতির জন্য যা বললেন ইউসুফ পাঠান

ডেস্ক রিপোর্ট: সাম্প্রতিক সময়ে বিশ্ব ক্রিকেটে বাংলাদেশ নিজেদের সক্ষমতার ছাপ রেখেছে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে গেলো সফরে টাইগারদের ছন্দপতন ক্রিকেটেরই অংশ। এমনটাই মন্তব্য করেছেন ভারতীয় হার্ড হিটার ইউসুফ পাঠান।

তবে ধারাবাহিক ভালো ক্রিকেট খেলতে হলে অবশ্যই ঘরোয়া কাঠামোতে আরো বেশি টুর্নামেন্ট আয়োজন করার কথাও বলেন তিনি। সাকিব দারুণ ক্রিকেটার। এছাড়া তামিম, মোস্তাফিজদের মতো ক্রিকেটার তৈরী করতে তৃণমূল থেকে মেধাবীদের খুঁজে বের করার পরামর্শ তার।

১০ জুন ২০০৮ সাল। মিরপুরে এশিয়া কাপে পাকিস্তানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে অভিষেক হয় ভারতীয় অলরাউন্ডার ইউসুফ পাঠানের। এরপর দীর্ঘ দিন বিশ্ব ক্রিকেটে বোলারদের ঘাড়ে ছড়ি ঘুরিয়েছেন হার্ড হিটার হিসেবে। তবে দীর্ঘ দিন ধরে জাতীয় দলের বাইরে তিনি। মজার ব্যাপার হলো সবশেষ ওয়ানডেও খেলেছেন পাকিস্তানের বিপক্ষে মিরপুরেই।

পাঠান আবারো এসেছেন বাংলাদেশে। তবে এবার টিম ইন্ডিয়ার জার্সি গায়ে নয়। ঢাকা প্রিমিয়ার ডিভিশন ক্রিকেট লিগে খেলবেন প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাবের হয়ে। ২০০৮ এশিয়া কাপে বাংলাদেশের বিপক্ষে দুটি ম্যাচে মাঠে নেমে ছিলেন ইউসুফ পাঠান। তাই কাছ থেকে দেখা বাংলাদেশের ক্রিকেট। সেসময়ের বাংলাদেশ আর এখনকার বাংলাদেশের মূল্যায়ন করলেন এভাবে।

ইউসুফ পাঠান বলেন, বাংলাদেশ পূর্বের তুলনায় নিজেদের অনেক উন্নত করেছে। সাম্প্রতিক সময়ে তারা দারুণ ক্রিকেট খেলছে। তাছাড়া টিমে ম্যাচ ঘুরিয়ে দেয়ার মতো অনেক ক্রিকেটার রয়েছে। তবে মাঝে মধ্যে ছন্দপতন হতেই পারে। এটা ক্রিকেটেরই অংশ। তবে কিভাবে ঘুরে দাঁড়ানো যায় সেই কৌশল শেখাটাই জরুরি।

ভারতের ঘরোয়া ক্রিকেট কাঠামো শক্ত বলেই বিশ্ব ক্রিকেটে দাপট দেখাচ্ছে তারা। তাই বিশ্ব ক্রিকেটে ধারাবাহিকতা ধরে রাখতে হলে অবশ্যই ঘরোয়া কাঠামোতে নজর দেয়ার পরামর্শ পাঠানের।

তিনি আরও বলেন, একটা দেশের ক্রিকেট উন্নয়নে মূল ভূমিকা রাখে সেই দেশের ঘরোয়া কাঠামো। দেখুন ভারতে লিগে প্রায় ২৬টি দল খেলে। আপনাদের এখানে মাত্র ১২টি দল অংশ নেয়। এছাড়া আরো বেশি বেশি টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে পারলে আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তার ছাপ পড়বে।

আইপিএলে কলকাতা নাইট রাইডার্সের হয়ে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানের সাথে দীর্ঘ দিন খেলেছেন ইউসুফ পাঠান। সাকিবকে চেনা বহুদিনের। প্রশংসা করলেন সতীর্থের। সেই সাথে পরামর্শ দিলেন এমন আরো ক্রিকেটার বের করে আনার।

পাঠান বলেন, সাকিবের সাথে দীর্ঘ দিন খেলেছি। ও দারুণ খেলে। তাছাড়া তোমাদের মাশরাফি, তামিম, মোস্তাফিজরাও ম্যাচ ঘুরিয়ে দেয়ার সক্ষমতা রাখে। তবে তাদের মতো আরো বেশি বেশি ক্রিকেটার বের করে আনতে হবে। তাই তৃণমূলে মেধাবী ক্রিকেটার খুঁজতে হবে।

‘তবে সব কিছুর আগে ক্রিকেটারদের অবশ্যই পরিশ্রমী হতে হবে। আর নতুন কিছু শেখার আগ্রহ থাকলেই ক্রিকেটাররা নিজেদের উন্নত করতে পারবে।’ সূত্র: সময় টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত