প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুই আলেমের মৃত্যুতে বিভিন্ন ইসলামি দল ও আলেমদের শোক

ওমর শাহ: হজরত হাফিজ্জী হুজুরের বড় ছেলে কারি মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফ ও জমিয়তের সহ-সভাপতি এবং আরজাবাদ মাদরাসার প্রিন্সিপ্যাল আল্লামা মোস্তফা আজাদের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন দেশের বিভিন্ন ইসলামি রাজনৈতিক দল ও আলেমরা।

 আল্লামা শফী ও জুনায়েদ বাবুনগরীর শোক

শোক জানিয়েছেন শীর্ষ দুই আলেম আমীরে হেফাজত, শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী ও হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরী।

তাঁরা এক যৌথ বিবৃতিতে পরপারে পাড়ি জমানো দুই মনীষীর জন্যে গভীর শোক প্রকাশ করেন।

আজ বাদ মাগরিব আরজাবাদ মাদরাসার মাঠে মোস্তফা আযাদের নামাজে জানাযা অনুষ্ঠিত হবে। আসর নামাযের পর আহমদুল্লাহ আশরাফের জানাযা অনুষ্ঠিত হবে।

বাতিলের বিরুদ্ধে আজীবন সংগ্রাম করেছেন তারা: খেলাফত মজলিস

হযরত হাফিজ্জ হুজুরের রহ. বড় ছেলে বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের সাবেক আমীরে শরীয়ত মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ-এর ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করে খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, মাওলানা শাহ আমাদুল্লাহ আশরাফ একজন সংগ্রামী আলেম হিসেবে বাতিলের বিরুদ্ধে আজীবন আন্দোলন-সংগ্রাম করে গেছেন।

একসময় তাঁর সুলতিত কণ্ঠের আজান এদশের মানুষকে মোহিত করত। এ দেশের ইসলামী আন্দোলনের ইতিহাসে তাঁর অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে।

আজ প্রদত্ত এক যৌথ শোকবাণীতে নেতৃদ্বয় মরহুম মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ -এর রুহের মাগফিরাত কামনা করে মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

আলাদা বিবৃতিতে দেশের প্রবীণ আলেমে দ্বীন মিরপুর আরজাবাদ মাদ্রাসার প্রিন্সিপাল ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সহ-সভাপতি মাওলানা মোস্তফা আজাদ -এর ইন্তিকালে গভীর শোক প্রকাশ করে খেলাফত মজলিসের আমীর অধ্যক্ষ মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক ও মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদের বলেছেন, মাওলানা মোস্তফা আজাদ একজন প্রথিতযশা আলেমে দ্বীন হিসেবে দ্বীনের প্রচার ও প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ আবদান রেখে গেছেন।

দ্বীনি শিক্ষা বিস্তারে তার অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে থাকবে। তাঁর মৃত্যুতে সৃষ্ট শূন্যতা কখনো পূরণ হবার নয়।

যৌথ শোকবাণীতে নেতৃদ্বয় মরহুম মাওলানা মোস্তফা আজাদ-এর রুহের মাগফিরাত কামনা করে মহান আল্লাহর দরবারে দোয়া করেন ও শোক সন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর
সমমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের শোক

ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি মাওলানা ইমতিয়াজ আলম, সিনিয়র সহ-সভাপতি আলহাজ আবদুর রহমান ও সেক্রেটারী এবিএম জাকারিয়া এক বিবৃতিতে হাফেজ্জী হুজুর রহ. এর বড় সাহেবজাদা মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফ এর মৃত্যুতে গভীর শোক ও পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন।

বিবৃতিতে তারা বলেন, ‘খেলাফত আন্দোলনের আমীর হিসেবে তিনি ছিলেন সত্য প্রকাশে নির্ভীক। তার মৃত্যুতে জাতি এক প্রথিতযশা আলেমকে হারাল। আল্লাহ তাকে জান্নাতের উচু মাকাম দান করুন।

একই বিবৃতিতে জমিয়ত উলামায়ে ইসলামের সহ-সভাপতি ও ঢাকার ঐতিহ্যবাহী দ্বীনি প্রতিষ্ঠান আরজাবাদ মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা মোস্তফা আজাদ এর মৃত্যুতে শোক প্রকাশ করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি, সহ-সভাপতি ও সেক্রেটারী।

দেশ দু’জন একনিষ্ট দীনের রাহবারকে হরালো: বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস

বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন হজরত হাফেজ্জী হুজুর রহ. এর ছেলে ও বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের সাবেক আমীরে শরীয়ত মাওলানা শাহ আহমদুল্লাহ আশরাফের ইন্তেকালে গভীর শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করে বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমীর প্রিন্সিপাল আল্লামা হাবীবুর রহমান ও মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক বলেছেন, মাওলানা আহমদুল্লাহ আশরাফ মাদরাসা মসজিদ প্রতিষ্ঠাসহ বিভিন্নভাবে দ্বীনের খেদমত করে গেছেন এবং ইসলাম ও দেশের স্বার্থে আন্দোলন র্সগ্রামে অবদান রেখেছেন।

বাংলার জমিনে খেলাফত প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন। তার মৃত্যুতে দেশ একনিষ্ঠ দিনের একজন রাহবারকে হারিয়েছেন যা অপূরণীয়। নেতৃবৃন্দ তার রুহের মাগফিরাত
কামনা করে তার শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

ভিন্ন প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে উভয়ে বিশিষ্ট আলেমেদ্বীন বাংলাদেশ কওমী মাদরাসা শিক্ষা বোর্ড (বেফাক) ও জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সহ-সভাপতি এবং আরজাবাদ মাদরাসার
প্রিন্সিপাল মাওলানা মোস্তফা আজাদের ইন্তেকালে গভীর শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন
করেছেন।

শোকবানীতে নেতৃদ্বয় বলেন, মাওলানা আজাদ দ্বীনি শিক্ষা সম্প্রসারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রেখেছেন।

দেশে বিদেশে তার অসংখ্য ছাত্র ও ভক্ত রয়েছে। রাষ্ট্রীয়ভাবে ইসলাম প্রতিষ্ঠার আন্দোলনে তার অংশগ্রহণ উল্লেখযোগ্য। তার মৃত্যুতে দেশ একজন দিনের রাহবারকে হারিয়েছেন যা অপূরণীয়।

নেতৃবৃন্দ তার পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করে তার রুহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং পরিবার পরিজনকে সবরে জামিল এখতেয়ার করার তাওফিক ও মরহুমককে জান্নাতে উচু মাকাম দেয়ার জন্য আল্লাহর দরবারে দুআ করেন।

মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীবের শোক

জামেয়া হুসাইনিয়া আরজাবাদ মিরপুর মাদরাসার প্রিন্সিপাল ও জমিয়তের সহ সভাপতি, বিশিস্ট লেখক ও গবেষক মুক্তিযোদ্ধা আল্লামা মুস্তফা আজাদ সাহেব, এবং আল্লামা শাহ আহমদুল্লাহ আশরাফ- এর ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশের সহ সভাপতি, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশে যুগ্ন মহাসচিব মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীব।

তিনি বলেন, আল্লামা মুস্তফা আজাদ বাংলা ভাষায় অধিক জ্ঞানের অধিকারী ছিলেন এবং সহি শুদ্ধভাবে তিনি কথা বলে আমাদের মুগ্ধ করতেন।

তিনি গভীর শোক ও সমবেদনা প্রকাশ করে বলেন, হজরত মাওলানা কারী আহমদুল্লাহ আশরাফ এর সাথে ১৯৮০ থেকে আমার পরিচয়। তিনি আমাকে খুবই মায়া, মহব্বত ও শ্নেহ করতেন এবং আমার একজন বড় মুহছেন ছিলেন।

তার আমল, আখলাক ও তবিয়ত নিয়ে তিনি বলেন, তিনি আমল ও আখলাকের প্রতি সবচেয়ে বেশিগুরুত্ব ছিল। খুবই দরদী মানুষ ছিলেন। দুঃখ দুর্দশা গ্রস্হ, গরিব নিঃস্ব, এতিম, অসহায় ও বিপদগ্রস্হ মানুষের প্রতি তার ছিল অধিক পরিমাণ দয়া মায়া ও করুনা।

বিবৃতিতে মাওলানা জুনায়েদ আল হাবীব বলেন, তিনি খুবই সৎসাহসী ব্যাক্তি ছিলেন। তাকওয়া ও পরহেজগারীতে তিনি ছিলেন খুবই অনন্য।

তিনি মহান আল্লাহর কাছে মুনাজাত করে বলেন, আল্লাহ জান্নাতের আ’লা মাকাম দান করুক, এবং তার পরিবার পরিজনের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন।

যে কোনো সংকটে হুইল চেয়ারে বসেই তিনি রাজপথে নেমে আসতেন: আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী

হযরত মুহাম্মাদুল্লাহ হাফেজ্জী হুজুর রহ.-এর বড় ছেলে, বাংলাদেশ খেলাফত আন্দোলনের সাবেক আমীরে শরীয়ত মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ-এর ইন্তিকালে গভীর শোকপ্রাকশ করেছেন জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম বাংলাদেশ এর মহাসচিব, হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমীর ও ঢাকা মহানগর সভাপতি আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী।

আজ (২৩ ফেব্রুয়ারী) সকালে প্রদত্ত এক শোকবার্তায় আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী বলেন, আমি মরহুম মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ-এর জন্য মহান আল্লাহর শাহী দরবারে করজোড়ে ফরিয়াদ জানাচ্ছি, তিনি যেন তাঁর এই মুখলিস দ্বীনের দায়ী ও বুযূর্গ আলেম বান্দাহকে মাগফিরাত দান করে নিজ রহমতের শীতল চাদরে আবৃত করে চিরস্থায়ী জান্নাতের উঁচু মাকামের মেহমান করে নেন। মরহুমের ইন্তিকালে জাতি এক প্রতিথযশা বাযূর্গ আলেম এবং দেশ, জাতি ও মানবতার তরে নিবেদিতপ্রাণ কৃতি সন্তানকে হারাল।

আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী আরো বলেন, ইলমে হাদীস ও মাদ্রাসা শিক্ষার প্রচার-প্রসারে ব্রত থাকার পাশাপাশি ইসলাহী বয়ান এবং তাসাউফ ও সুলূকের লাইনে মরহুম হযরত বহু খেদমত করে গেছেন। জীবনের শেষ প্রান্তে এসেও অসুস্থ শরীর নিয়ে তিনি ঈমান-আক্বীদার আন্দোলনে এবং দেশ-জাতি ও মানবতার যে কোন সংকটে হুইল চেয়ারে বসে রাজপথে নেমে আসতেন।

তাঁর বর্ণাঢ্য কর্মজীবন এই দেশের আলেম সমাজ ও সৎরাজনীতিবিদদের জন্য এক অনুকরণীয় আদর্শ হয়ে থাকবে।

শোকবার্তায় জমিয়ত মহাসচিব আরো বলেন, মরহুম মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফ অধ্যাপনা শেষ করার পর হায়াতের পুরো সময়টাই ইলমের হাদীসের ও তাসাউফের দরস দিয়ে অগণিত আলেমে-দ্বীন তৈরিতেও বিশাল ভূমিকা রেখে গেছেন। ইলমি খিদমত ও রাজনৈতিক নেতৃত্বে প্রজ্ঞা ও পরিশুদ্ধ আমলের ক্ষেত্রে তার অবস্থান ছিল ঈর্ষনীয়।

শোক বার্তায় আল্লামা নূর হোসাইন কাসেমী মরহুম মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফ-এর অগণিত খলীফা, মুরীদ, ছাত্র, ভক্ত, শুভানুধ্যায়ী এবং শোকসন্তুপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা প্রকাশ করেন এবং তাঁদের সকলের সবরে-জামিলের জন্য দোয়া করেন।

আমরা দুজন প্রতিবাদী অভিভাবক হরালাম: মুফতি রুহুল আমিন

হজরত হাফেজ্জি হুজুর রহ. এর বড় ছেলে আমীরে শরীয়ত মাওলানা শাহ আহমাদুল্লাহ আশরাফ এবং তার কিছুক্ষণ পরই জামিয়া আরজাবাদের প্রিন্সিপাল মাওলানা মোস্তফা আজাদের ইন্তেকালে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন ছদর ছাহেব হুজুরের রহ. ছাহেবজাদা ও গওহরডাঙ্গা মাদরাসার মহাপরিচালক আল্লামা মুফতি রুহুল আমীন।
আজ এক বিবৃতিতে তিনি শোক প্রকাশ করেন।

শোকবার্তায় খাদেমুল ইসলাম বাংলাদেশের আমীর বলেন, মাওলানা আহমাদুল্লাহ আশরাফ ছিলেন বাতিলের আতঙ্ক তার রাজনৈতিক দর্শন ছিল প্রশংসনীয় ইসলাম বিরোধী আন্দোলন সংগ্রামে তিনি সবার আগে ময়দানে থাকতেন।

একই সঙ্গে মাওলানা মোস্তফা আজাদ এদেশের দীনি ও রাজনীতির মাঠে একজন সচেতন আলেম ছিলেন। যার বিদায় আমাদের জন্য বড় বেদনার।

তিনি বলেন, আমরা একই দিনে প্রতিবাদী দুজন অভিভাবক হরালাম। আল্লাহ তাদের জাযায়ে রহমত এনায়েত ফরমান এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারকে সবরে জামিল আতা ফরমান।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত