প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিরল রোগী আবুলকে নিয়ে চিকিৎসকদের দুশ্চিন্তা

রিকু আমির : ট্রিম্যান সিনড্রোম নামক বিরল রোগাক্রান্ত খুলনার আবুল বাজনাদারের দেহে হেপাটাইটিস বি এবং সি এর জীবাণু থাকায় চিকিৎসকরা বেশ চিন্তিত।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটে দুই বছরের বেশি সময় ধরে চিকিৎসাধীন আবুল বাজনাদার সম্পর্কে একজন চিকিৎসক বলেন, তার হাত-পায়ে শেকড় সদৃশ বস্তু না থাকলেও হেপাটাইটিস বি এবং সি বহন করাটা বেশ বিপজ্জনক। এই দুই ভাইরাস তার দেহে খুব উচ্চমাত্রায় আছে। এটা তার জন্যে যতটা বিপজ্জনক তার চেয়ে বেশি বিপজ্জনক, তার কাছে যেসব চিকিৎসক- নার্স-ওয়ার্ড বয় বা অন্যরা যাচ্ছেন।

২০১৬ সালের ৩০ জানুয়ারি এই বার্ন ইউনিটে তার চিকিৎসা শুরু করার পর বেশকিছু পরীক্ষা-নীরিক্ষায় ধরা পড়ে হেপাটাইটিস বি-সি এর অস্তি¡ত্ব।

এক-দুই সপ্তাহ পরপর তার দুই হাত-পায়ে বিশেষ পদ্ধতিতে ড্রেসিং করেন চিকিৎসকরা। এ প্রসঙ্গে ওই চিকিৎসক বলেন, হেপাটাইটিস বি এবং সি এর ভয়ে হাতেগোনা দু-একজন চিকিৎসক এবং একজন ওয়ার্ড বয় ছাড়া তার ড্রেসিং এ কেউ যেতে চান না। ড্রেসিং বা অপারেশনের সময় যেসব যন্ত্রপাতি ব্যবহার করা হয়, তা একেবারে ফেলে দেয়া হয় শুধুমাত্র সংক্রমণের ভয়ে।

দুই বছরের বেশি সময়ে আবুল বাজনাদারের দুই হাত-পা মিলিয়ে ছোট-বড় ৫০টিরও বেশি অপারেশন সফলভাবে সম্পন্ন করেছেন চিকিৎসকরা। বার্ন ইউনিটের সহকারী অধ্যাপক তানভীর আহমেদ এ প্রতিবেদককে জানান, আবুল বাজনাদারের চিকিৎসা কতদিন যে চলবে, ঠিক নেই। তার রোগটা একেবারে নতুন। বিদেশে সহযোগিতা চাইলে তারা উল্টো আমাদের কাছে জানতে চায়, আমরা কীভাবে ব্যবস্থাপনা করছি। এটাকে তারা সমর্থন দেয়। কিন্তু কেউ সেভাবে এগিয়ে আসে না।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত