প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গুরকিরাতে জিতল গাজী ক্রিকেটার্স

নিজস্ব প্রতিবেদক : বর্তমান চ্যাম্পিয়ন গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্সের এবার নাকি রেলিগেশন এড়ানোই দায়! দল গড়ার পর কোচ সালাহউদ্দিন এমন কথাই বলেছিলেন। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের প্রথম চার ম্যাচের তিনটিতেই হারল দলটি। পঞ্চম ম্যাচে এসে বৃহস্পতিবার হারের শঙ্কায় একবার পড়লেও ভারতীয় গুরকিরাত সিংয়ে বেঁচে গেল। ৫ বল হাতে রেখে এদিন ব্রাদার্স ইউনিয়নকে হারিয়েছে তারা। ৫ ম্যাচে ২ জয়ে পয়েন্ট টেবিলে সামান্য উন্নতি ঘটেছে গাজী ক্রিকেটার্সের। ৫ ম্যাচে এটা তৃতীয় হার ব্রাদার্সের।

বিকেএসপিতে ঢাকা লিগের এই ম্যাচে ব্রাদার্স লড়ার মতোই সংগ্রহ পেয়েছিল উইকেটরক্ষক-ব্যাটসম্যান দেবব্রত দাসের প্রথম লিস্ট ‘এ’ সেঞ্চুরিতে। ১১২ রানে অপরাজিত ছিলেন দেবব্রত। তার দল ৫ উইকেটে ২৭৩ রান তুলেছিল। জবাবে ১ উইকেটে ১২৪ রান তোলা গাজী ক্রিকেটার্স গোত্তা খায় পরে। ২৩৫ রানে ৮ উইকেট হারানোর পর জয় তাদের কাছে অনেক দূরের পথ দেখাচ্ছিল। কিন্তু নাঈম হাসানকে (অপরাজিত ১১) নিয়ে বাকি পথটা পাড়ি দিয়েছেন ৭১ রানে অপরাজিত থাকা গুরকিরাত। শেষ ওভারে দরকার ছিল ৩ রান। দ্বিতীয় বলটি নিহাদুজ্জামান ওয়াইড করলেন। হলো বাউন্ডারিও। ৫ রান। ম্যাচ শেষ।

গাজী গ্রুপ দলের ১৩ রানে হারিয়েছিল মেহেদি হাসানকে (১০)। এরপর ওপেনার ইমরুল কায়েসের (৬৫) সাথে মুমিনুল হকের (৫৭) দ্বিতীয় উইকেট জুটি ১১১ রানের। কিন্তু ব্রাদার্সের বোলাররা হামলে পড়েন। ৩ উইকেট তুলে নেন দ্রুত। ১৪৪ রানে ৪ উইকেট হারা দল গাজী। গুরকিরাতের সাথে জুটি বেধে জাকের আলী অনিক (১৫) ও নাদীফ চৌধুরী (১৫) দলকে নিয়ে যান ২৩৪ রান পর্যন্ত। কিন্তু ওখানে গিয়ে ২ রানে ৩ উইকেট হারায় গাজী গ্রুপ। মেহেদী হাসান রানা ৪৩তম ওভারে হ্যাটট্রিকের সুযোগ তৈরি করেছিলেন। হয়নি। সেখান থেকে গুরকিরাত দলকে জিতিয়ে মাঠ ছেড়েছেন।

এর আগে টসে হেরে শুরুতে হোচট খেলেও রুখে দাঁড়ায় ব্রাদার্স। ওপেনার জুনায়েদ সিদ্দিকি ৪৩ রান করেন। সেঞ্চুরিয়ান দেবব্রতর সাথে প্রতিরোধের জুটি আছে। অধিনায়ক অলক কাপালী খেলেছেন ৪১ রানের ইনিংস। ইয়াসির আলী করেছেন ফিফটি। সব মিলিয়ে ভালো একটি সংগ্রহ পায় ব্রাদার্স। ১০৯ বলে ৭ চার ও ৬ ছক্কায় ১১২ রান করে অপরাজিত থাকেন দেবব্রত।

সংক্ষিপ্ত স্কোর :

ব্রাদার্স ইউনিয়ন : ২৭৩/৫ (৫০ ওভার) (জুনায়েদ ৪৩, দেবব্রত ১১২*, অলক ৪১, ইয়াসির ৫৪; রুহেল ২/৫৬, নাঈম হাসান ২/২৯, আবু হায়দার ১/৬৪)।
গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স : ২৭৬/৮ (৪৯.১ ওভার) (ইমরুল ৬৫, মুমিনুল ৫৭, গুরকিরাত ৭১*, নাঈম হাসান ১১*; খালেদ ২/৩৭, ইফতেখার ১/৪৯, মেহেদী রানা ২/৪৯, অলক ১/৪১, নিহাদুজ্জামান ২/৪৩)।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : গুরকিরাত সিং।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত