প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভ্যাট আইন কার্যকর না হওয়ায় রাজস্ব আয়ে ঘাটতি! (ভিডিও)

ফারমিনা তাসলিম : চলতি অর্থবছরে সবচেয়ে কম আদায় হয়েছে মূল্য সংযোজন কর বা ভ্যাট। যার ফলে গত ৭ মাসে প্রায় ১৫ হাজার কোটি টাকা রাজস্ব আয়ে ঘাটতি হয়েছে। বিশ্লেষকদের মতে, ভ্যাট আইন কার্যকর না হওয়ায় রাজস্ব আয়ে ঘাটতি হবে।

নতুন আইন কার্যকর না হওয়ায় ভ্যাট থেকে রাজস্ব আদায় নিয়ে এনবিআরের শঙ্কা বাস্তবতায় রূপ নিয়েছে। অর্থ বছরের সাত মাসে লক্ষ্যের চেয়ে প্রায় সাত হাজার কোটি টাকা ভ্যাট কম আদায় হয়েছে।

এনবিআরের হিসেব মতে, এ সময়ে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্য ছিল সোয়া লাখ কোটি টাকা। আদায় হয়েছে এক লাখ সাড়ে নয় হাজার কোটি টাকা। যা আগের অর্থ বছরের একই সময়ের চেয়ে প্রায় ১৫ ভাগ বেশি। যদিও ৩৫ ভাগ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্য ছিল।

বিশ্লেষকেরা জানান, রাজস্ব আয়ের ঘাটতির প্রভাব পড়বে বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচিতে। আয় কম হলে কাটছাঁট হবে উন্নয়ন প্রকল্পের ব্যয়।

পিআরআই নির্বাহী পরিচালক আরমান এইচ মনসুর বলেন, অর্থনীতি যতখানি শক্তিশালী মনে করা হচ্ছে হয়তো ততখানি নয়। সেটা হলে আমরা ভ্যাট এবং ইনকাম ট্যাক্স এই দুইটার ক্ষেত্রে আমরা হয়তো রাজস্ব পূরণ করতে পারতাম।

এনবিআর কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, এই পর্যন্ত মোট কর আদায়ে আয়কর থেকে এসেছে ৩৩ হাজার কোটি, শুল্ক থেকে ৩৫ হাজার কোটি আর ভ্যাট থেকে সাড়ে ৪১ হাজার কোটি টাকা।

সিগারেট, ব্যাংক, বীমাসহ বৃহৎ খাতগুলো থেকে রাজস্ব আদায় কম হয়েছে। তবে বিরোধ নিষ্পত্তির মাধ্যমে অর্থ বছরের শেষের দিকে রাজস্ব আদায় বাড়তে পারে। আদালত ও ট্রাইব্যুনালে প্রায় ৫০ হাজার কোটি টাকার রাজস্ব মামলা চলমান আছে।

এনবিআর কমিশনার মতিউর রহমান বলেন, ‘কোন প্রতিষ্ঠানে কি ধরনের কার্যক্রম গ্রহণ করলে ভ্যাট সঠিকভাবে আদায় হবে। সেটা পরিকল্পনা করেছি কোন প্রতিষ্ঠানগুলো ঝুঁকিপূর্ণ অডিট করা দরকার সেটা আলাদা করেছি।’

চলতি অর্থবছরে রাজস্ব আয়ের লক্ষ্য প্রায় ২ লাখ ৪৮ হাজার কোটি টাকা। বিশ্লেষকরা বলছেন, আদায় কম হওয়ায় কাটছাঁট করতে হবে আদায়ের লক্ষ্য।

সূত্র : ইনডিপেনডেন্ট টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ