প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মালদ্বীপে জরুরি অবস্থা আরো ৩০ বাড়াতে চান প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন

মাছুম বিল্লাহ : দক্ষিণ এশিয়ার দ্বীপ রাষ্ট্র মালদ্বীপে জরুরি অবস্থার মেয়াদ আরো ৩০ দিন বৃদ্ধির জন্য পার্লামেন্টের অনুমোদন চেয়েছেন দেশটির প্রেসিডেন্ট আব্দুল্লা ইয়ামিন। গত সোমবার এ আনুমোদন চেয়ে তিনি বলেন যে, জাতীয় নিরাপত্তার প্রতি হুমকি এখনো নি:শেষ হয়নি এবং সাংবিধানিক সংকটও কাটেনি। খবর রয়টার্সের।

গত ৫ ফেব্রুয়ারি ১৫ দিনের জন্য জরুরি অবস্থা জারি করেন প্রেসিডেন্ট ইয়ামিন। এর আগে সুপ্রিম কোর্ট বিরোধী দলের শীর্ষ নয় নেতাকে কারাগার থেকে মুক্তি দিতে সরকারকে নির্দেশ দেয়। মঙ্গলবার জরুরি অবস্থার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিলো।

বিরোধী দলগুলো বলছে, প্রেসিডেন্টের আবেদন অনুমোদনের জন্য ৮৫ সদস্যের পার্লামেন্টে কোরাম হতে হবে। আর সে জন্য ৪৩ জন এমপি’র উপস্থিতি প্রয়োজন। ফলে সোমবার বিরোধী দলের কোন এমপি পার্লামেন্টে যাননি, সরকারি দলের ৩৯ জন এমপি উপস্থিত ছিলেন।

চলতি মাসের শুরুর দিকে হাইকোর্ট ইতোপূর্বে বরখাস্ত হওয়া ১২ জন এমপি’কে পুনর্বহাল করতে সরকারকে নির্দেশ দেয়ি। এসব এমপি গতবছর ইয়ামিনের দল ত্যাগ করেন। এই ১২ এমপি’কে বরখাস্ত করার ফলে পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা ধরে রাখতে সক্ষম হয় সরকার।

গত রোববার আরেক রায়ে সুপ্রিম কোর্ট ১২ এমপি’র পুনর্বহাল বিলম্বিত করার নির্দেশ দেয়। জরুরি অবস্থা জারির পর ইয়ামিন প্রশাসন প্রধান বিচারপতি, সুপ্রিম কোর্টের আরেক বিচারপতি এবং সাবেক প্রেসিডেন্ট মামুন আব্দুল গাইয়ুমকে গ্রেফতার করে। তাদের বিরুদ্ধে সরকার উৎখাতের ষড়যন্ত্রে জড়িত থাকার অভিযোগ আনা হয়েছে।

তবে সাংবিধানিকভাবে জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়াতে পার্লামেন্টের অনুমোদন প্রয়োজন হয় কি-না তা নিয়ে এখন সরকার ও বিরোধী দলের মধ্যে বিতর্ক চলছে। পার্লামেন্টে ক্ষমতাসিন দলের নেতা আহমেদ নিহান বলেন, বিরোধী দল যদি ঘোষণা বাতিল করতে চায় তাহলে তাদেরকে পার্লামেন্টে গিয়ে ভোটাভুটিতে অংশ নিতে হবে।

অন্যদিকে, বিরোধী পক্ষের সংসদীয় দলের নেতা বলেন, পার্লামেন্ট অনুমোদন না করলে জরুরি অবস্থা কার্যকর হবে না। ‘সংবিধানে স্পষ্ট লেখা আছে যে জরুরি অবস্থার মেয়াদ বাড়ানোর জন্য পার্লামেন্টের অনুমোদন অপরিহার্য।’

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত