প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কী হবে ফ্লোরিডার স্কুলে হামলাকারীর সাজা?

ডেস্ক রিপোর্ট : যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার একটি স্কুলে গুলি করে ১৭ জনকে হত্যার দায়ে অভিযুক্ত নিকোলাস ক্রুজের বিরুদ্ধে অকাট্য সাক্ষ্যপ্রমাণ পাওয়া গেছে। ফলে ক্রুজ অপরাধ করেছে না করেনি তা বিচারের প্রধান বিষয় নয়। তার সাজা মৃত্যুদণ্ড হবে নাকি যাবজ্জীবন হবে তা-ই প্রধান বিবেচ্য। ক্রুজের পক্ষে নিয়োজিত সরাকারি আইনজীবী হোয়ার্ড ফিনকেলস্টেইনের বরাত দিয়ে এ খবর জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এপি।

১৯ বছরের ক্রুজের বিরুদ্ধে ১৭ জনকে ঠাণ্ডা মাথায় হত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে। মারজরি স্টোনম্যান ডগলাস হাই স্কুলে ১৪ ফেব্রুয়ারিতে এই হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল। বিচারে শাস্তি নির্ধারণের আগে আদালত তার মানসিক সুস্থতার বিষয়ে নিশ্চিত হবে এবং একই সঙ্গে নিহত ও আহতদের স্বজনদের মতামত শুনবে। ন্যায় বিচারের স্বার্থে তাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী শাস্তির ধরণ নির্ধারিত হবে। আলোচনায় মৃত্যুদণ্ড ও যাবজ্জীবন থাকলেও ক্রুজের পক্ষে আইনজীবীরা তাকে মানসিক ভারসাম্যহীন প্রমাণ করতে পারলে রায়ে তাকে মৃত্যুদণ্ড নাও দেওয়া হতে পারে। তবে মানসিক ভারসাম্যহীনতার যুক্তিতে মৃত্যুদণ্ড এড়ানোর ঘটনা বিরল।

ব্রডওয়ার্ড কাউন্টির সরকারি আইনজীবী হোয়ার্ড ফিনকেলস্টেইন ক্রুজের হয়ে আদালতে লড়বেন। তিনি বলেছেন, ক্রুজের বিষয়ে এমন অনেক কিছু আছে যা তার মানসিক ভারসাম্যহীনতার ইঙ্গিত দেয়। তাই তার অপরাধের জন্য যদি তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হয় তাহলে তা শাস্তি বেশি হয়ে যাবে।

ক্রুজের পক্ষে নিয়োগ করা এই সরকারি আইনজীবী বলেন, ‘এখন মামলাটি জীবন-মৃত্যুর সিদ্ধান্ত নেওয়ার মামলা হয়ে উঠেছে। সে অপরাধটি করেছে কি না বা তাকে মুক্তি দেওয়া যেতে পারে কি না সেটা আর এখন বিবেচ্য নয়। প্রশ্নটা হচ্ছে, তাকে বাঁচিয়ে রাখা হবে না কি তাকে মৃত্যুদণ্ড দেওয়া হবে। ব্যক্তিগতভাবে আমি খুবই বিচলিত এবং ক্রদ্ধ এই ভেবে, আমারা সবাই সমস্যাটি চিহ্নিত করতে ব্যর্থ হয়েছি।’

ব্রোওয়ার্ড কাউন্টির সরকার পক্ষের আইনজীবী মাইকেল জে সাটজ। তিনি ক্রুজের বিরুদ্ধে অপরাধ প্রমাণের চেষ্টা করবেন। এই আইনজীবী শনিবার ইমেইলে এপিকে জানিয়েছেন, ‘এটি নিশ্চয় সেই ধরণেরই অপরাধ যেগুলোর জন্য মৃত্যুদণ্ডের বিধান রাখা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডটি চরম ভয়ানক ও বেদনাদায়ক’। তিনি আরও জানান, ক্রুজের অপরাধের জন্য চূড়ান্ত শাস্তি চাওয়ার বিষয়টি নিয়ে পুলিশের সঙ্গে আলোচনা করছেন।

আদালতে বিচার চলাকালে ক্রুজের মানসিক সুস্থতার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠবে। কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, সে আগে মানসিক সমস্যার চিকিৎসা নিত। কিন্তু নভেম্বরে মা মারা যাওয়ার পর সে চিকিৎসা নেওয়া বন্ধ করে দেয়। তার বাব মারা গিয়েছেন কয়েক বছর আগে। বাবা-মা মারা যাওয়ায় স্থানীয় একটি পরিবার তাকে আশ্রয় দিয়েছিল।

আদালতে ক্রুজকে প্রথম দিন হাজির করার পর তার পক্ষের সহকারী সরকারি আইনজীবী মেলিসা ম্যাকনেইল সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘ক্রুজ সমাজ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গিয়েছিল এবং তাকে সহায়তা করার মতো কেউ ছিল না। ১৯ বছরের একজনের যে ধরণের রাগ হয় তা যদি নিয়ন্ত্রণ করা না যায় তাহলে ব্যক্তির জীবনে সেটার প্রভাব পড়তে বাধ্য। ক্রুজ শোকাহত, অনুতপ্ত ও ভেঙে পড়া একজন মানুষ।’

আদালতের বিচার বোঝার মতো মানসিক সুস্থতা ক্রুজের আছে কি না, তা নিয়েও একটি সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে ক্রুজের জন্য মানসিক ভারসাম্যহীনতার যুক্তি দেখিয়ে ছাড় পাওয়ার সম্ভাবনা খুব কম। এই বিচার শেষ হতে কয়েক বছর লেগে যেতে পারে।

২০১২ সালে কলোরাডো সিনেমা হলে গুলি করে ১২ জনকে হত্যা ও ৭০ জনকে আহত করার দায়ে অভিযুক্ত জেমস হোমসও নিজেকে মানসিক ভারসাম্যহীন দাবি করেছিল আদালতে। কিন্তু তার সে আর্জি নামঞ্জুর হয়।

স্থানীয় পুলিশ প্রধানের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ক্রুজ অপরাধ স্বীকার করেছে। তারা ক্রুজের ব্যবহৃত এআর-১৫ সেমি আটোমেটিক রাইফেল, গুলির খোসা এবং স্কুলের সিসিটিভি ক্যামেরার ফুটেজ আলামত হিসেবে জব্দ করেছেন। এছাড়া শুক্রবার এফবিআই স্বীকার করেছে, তারা ফোনে একজনের কাছ থেকে আগাম তথ্য পেয়েছিল। তথ্যদাতা জানিয়েছিল ক্রুজ মানুষ হত্যা করতে চায় এবং সে স্কুলে গোলাগুলি চালাতে পারে। এফবিআইয়ের পরিচালক ক্রিস্টোফার রে এক বিবৃতিতে বলেছেন, সেই তথ্য যথাযথভাবে অনুসন্ধান করা হয়নি। তিনি আশ্বাস দিয়েছেন, বিষয়টি নিয়ে গভীর তদন্ত করা হবে। সূত্র : বাংলাট্রিবিউন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত