প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপি হচ্ছে রাজনীতির বিষবৃক্ষ, সংসদে তথ্যমন্ত্রী

আসাদুজ্জামান সম্রাট : বিএনপিকে রাজনীতির বিষবৃক্ষ বলে আখ্যায়িত করে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল- জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, সামরিকতন্ত্র, হত্যা-খুন-ষড়যন্ত্রের সংমিশ্রনে জিয়াউর রহমান বিষবৃক্ষটি রোপণ করেছেন। আর খালেদা জিয়া তাতে পানি দিয়ে বড় করেছেন। তাই বিষবৃক্ষ নিয়ে গণতন্ত্রের বাগান সাজানো যায় না। কাউকে জোর করে নির্বাচনে আসতে বাধা দেয়া হচ্ছে না, আদালতের মাধ্যমে সাজাপ্রাপ্ত হচ্ছে। এই পাঁচটি বছর ধরেই বিএনপি সব নির্বাচনে অংশ নিয়েছে। আর নির্বাচন দরকাষাকষির বিষয় নয়। অন্তর্ভূক্তির নির্বাচনের নামে রাজনীতির বিষবৃক্ষকে সুযোগ দেয়া না।

রোববার জাতীয় সংসদে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর সাধারণ আলোচনায় অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। তথ্যমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন বিএনপির নির্বাচনী এজেন্ডা না। বিএনপির এজেন্ডা মা-ছেলের বিচার বন্ধ করা, পুড়িয়ে মানুষ পুড়িয়ে হত্যার বিচার বন্ধ করা। এজন্যই তারা অসাংবিধানিক সহায়ক সরকারের কথা বলছে। নির্বাচন বানচালের উছিলাই হচ্ছে সহায়ক সরকার। আর খালেদা জিয়ার সাজাকে কেন্দ্র করে নির্বাচন বানচালের ষড়যন্ত্র করছে। বিস্ময়কর গতিতে বাংলাদেশ যে এগিয়ে যাচ্ছে, সেই পথ মসৃণ নয়, বরং কন্টকাকীর্ণ ছিল। স্বাধীনতাবিরোধী বিএনপি-জামায়াত উন্নয়নের পথে বাধা দিয়ে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, দেশের মানুষের শঙ্কা, দেশে উন্নয়ন ও শাস্তির ধারা অব্যাহত থাকবে, নাকি বাংলাদেশে আবারও অগ্নিসন্ত্রাস, জঙ্গী-সন্ত্রাস, বাংলা ভাইয়ের যুগ ফিরে আসবে কি না। আবার শহীদ মিনার ভাঙ্গা হবে কি না, আদালতে বোমা মেরে বিচারক মেরে ফেলা হবে কিনা। আবারও কী ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা, হাওয়া ভবনের যুগ ফিরে আসবে কি না। এ নিয়ে জনগণে শঙ্কা রয়েই গেছে। খালেদা জিয়া যতই ভোল পাল্টাক, নির্বাচন ও গণতন্ত্রের মুখোশ পড়–ক, তিনি বদলাননি। নির্বাচন বর্জন করলে জঙ্গী তান্ডব করে, মানুষকে পুড়িয়ে হত্যা করে। বিএনপি হচ্ছে রাজনীতির বিষবৃক্ষ।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, জাতির আজ ঐতিহাসিক সিদ্ধান্তের মুখে দাঁড়িয়ে আছে। দেশবাসীকে সিদ্ধান্ত নিতে হবে, যদি গণতন্ত্র চান তবে রাজনীতির বিষবৃক্ষ ছুঁড়ে ফেলতে হবে। একাত্তর থেকে আজ পর্যন্ত যত খুন হয়েছে, তার সঙ্গে জড়িতদের আস্তানা হচ্ছে বিএনপি। সাম্প্রদায়িক জঙ্গী গোষ্ঠীর আশ্রয়স্থল। তাই বিএনপি যতদিন থাকবে ততদিন সাম্প্রদায়িকতার জন্ম দিয়েই যাবে। বাংলাদেশকে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে রাখতে হবে এবং গণতন্ত্রকে সংবিধানের পথে রাখতে হলে কোন দর কষাকষির পথে না গিয়ে দুর্নীতিবাজ, খুনীদের বিচার করতে হবে, বিএনপিকে রাজনৈতিকভাবে বিদায় ও বর্জনের সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সংবিধান অনুযায়ী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সঠিক সময়ে নির্বাচন করতে হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত