প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

খালেদা জিয়ার পরিচারিকা ইস্যু বনাম রোহিঙ্গা ইস্যু

অজয় দাশগুপ্ত : খালেদা জিয়া তার সাথে গৃহপরিচারিকা ফাতেমাকে পাবেন কি পাবেন না সেটা নিয়ে যত কথা তার সিকিভাগ মনোযোগ পাচ্ছে না রোহিঙ্গা ইস্যুর সমাধান। খালেদা জিয়া বা তার মামলা আমাদের দেশের বিষয় ফলে তা নিয়ে জনমনে উদ্বেগ থাকা স্বাভাবিক। আছে উৎকন্ঠা, আছে আনন্দও। কিন্তু মনে রাখা দরকার রাজনীতিতে জেল-জুলুম কোনো নতুন ঘটনা নয়।

বরং তারাই খ্যাতিমান, তারাই বিখ্যাত যারা জেলে গিয়েছেন। তবে দুর্নীতির দায়ে আর রাজনৈতিক কারণে জেল খাটা এক নয়। খালেদা জিয়া যে সহজে বেরিয়ে আসতে পারবেন না সেটা আরও মামলা কিংবা গিয়াসউদ্দীনের মতো লুটেরাকে আবার মিডিয়ায় নিয়ে আসার ভেতরই স্পষ্ট। এদিকে সোশ্যাল বা সামাজিক মিডিয়ায় তারেক রহমানের মুখে পাকিস্তান জিন্দাবাদ শোনা যাচ্ছে।

এটি বানানো না সত্যি তা আমরা জানি না। যদি সত্য হয় তাহলে দেশের পাশাপাশি বিদেশের বাংলাদেশিদের মনেও উদ্বেগ ছায়া ফেলবে বৈকি। উপায়ান্তর না দেখে তিনি তারেক রহমান পাকিদের কাছে আত্মসমর্পন করবে এটা অস্বাভাবিক কিছু না। সে রাজনীতি তারা অনেককাল থেকেই করে আসছে। কিন্তু এবার যা দেখলাম সত্য হলে বুঝতে হবে পাকিকরণে একবিন্দুও আর ছাড় দেবে না বিএনপি। কারণ শেখ হাসিনার বলিষ্ঠতায় সব হারিয়ে পাকিস্তানে প্রত্যাবর্তন ছাড়া তার হাতে আর কোনো অস্ত্র নেই।

বলছিলাম রোহিঙ্গ্যা ইস্যুতে আমাদের মনোভাব আর ভূমিকার কথা। লাখে           লাখে শরণার্থী আর মানবেতর জীবনযাপনে বাধ্য মানুষকে খেদিয়ে দেবা মিয়ানমারের মন্ত্রীকে লাল গালিচা সংবর্ধনা দেওয়ার মানে কি? সংবর্ধনা বা প্রটোকল কি এক বিষয়? তাদের যথাযোগ্য সম্মান আর আতিথেয়তা দিতে হবে। কিন্তু কেন এই বাড়াবাড়ি? আর তাতে লাভ কি? স্বরাষ্টমন্ত্রী তো নিজেই বললেন, সুস্পষ্ট কোনো তারিখ ঠিক হয়নি। ঠিক কবে হবে সেটা ও প্রশ্নবোধক। যার মানে রোহিঙ্গারা সহজে যাচ্ছে না। তাদের ফেরত নেবার তালবাহানা আর জোর করে পুশ-ইন করার পরও আমরা মিয়ানমারের সাথে এত কোমল, এত প্রেমময় কেন সেটাই মাথায় ঢুকছে না।

মিয়ানমার বিষয়ে একটা কথা সবাই জানেন সোজা আঙুলে ঘি উঠবে না। তো আঙুল বাঁকা করার মতো শক্তি কি আমাদের এখনো অর্জিত হয়নি? আরেকটা বিষয় দেখুন আর সব সমস্যার মতো মিয়ানমারের ঠেলে দেওয়া রোহিঙ্গা সমস্যা এত জনসংখ্যার ভীড়ে কেমন তলিয়ে যাচ্ছে। এটাই  ভয়ের। দেশের আয় উন্নতি বা উন্নয়নের পেছনে যে মানুষ মানুষের শ্রম তাকে এভাবে শরণার্থী বা অন্যখাতে ব্যয় হতে দেওয়ার অধিকার কি সরকারের আছে আসলে?

খালেদা জিয়া ইস্যুতে চাপা পড়ে গেলে রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানের আলো দেখবে কবে? আর খালেদা জিয়ার মুক্তি কখন বা কিভাবে বা আদৌ হবে কি না কে জানে, কিন্তু ফাতেমার মতো সাধারণ মানুষকে টাকার লোভে কিংবা আনুগত্যে কিংবা অন্য কোনো কারণে জেলে রাখা প্রমাণ করেছে, আমাদের রাজনীতি এখনো মধ্যযুগে। যেখানে আগেরদিনের দাসদাসীর মতো মানুষকে জেলে পাঠানো যায়। হায় মানবতা!

লেখক কলামিস্ট ও বিশ্ববিদ্যারয় পরীক্ষক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত