প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রুহানির সঙ্গে ৯ সমঝোতা স্মারক ও চুক্তি স্বাক্ষর মোদির

ইমরুল শাহেদ : ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির মধ্যে শনিবার সকালে ‘তাৎপর্যবহ ও ফলপ্রসূ’ আলোচনা হয়েছে। এ সময়ে তাদের মধ্যে প্রতিরক্ষা ও নিরাপত্তা, বাণিজ্য ও বিনিয়োগ এবং জ্বালানি খাত নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

দীর্ঘ আলোচনায় তারা আঞ্চলিক পরিস্থিতি নিয়ে সুচিন্তিত মতামতও ব্যক্ত হয়েছে। এ সময় তারা নয়টি চুক্তি ও সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন। এর মধ্যে রয়েছে ভারতীয় বিনিয়োগের মাধ্যমে চৌবাহার বন্দর উন্নয়ন, জ্বালানি-পেট্রোলিয়াম-গ্যাস খাতে পারস্পরিক সহযোগিতা। এছাড়া রয়েছে চৌবাহার বন্দর ছাড়াও শহীদ বেহেশতি বন্দর চুক্তি, দ্বৈত কর নীতি এড়িয়ে যাওয়ার চুক্তি, কূটনৈতিক পাসপোর্টধারীদের জন্য প্রয়োজনীয় ভিসা নীতি হ্রাস করার ব্যাপারে সমঝোতা স্মারক, পলাতক আসামি প্রত্যাবর্তন চুক্তি দৃঢ়করণ, ঔষধ ক্ষেত্রে সহযোগিতা, বাণিজ্য ক্ষেত্রে সমঝোতা স্মারক, কৃষি-স্বাস্থ্য-পোস্টাল ক্ষেত্রে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর হয়েছে।

এর আগে রুহানি তিন দিনের সফরে ভারতে আসেন। তিনি হায়দরাবাদে দুই দিন অতিবাহিত করার পর শুক্রবার রাতে দিল্লি পৌঁছান। শনিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী মোদি ছাড়াও প্রেসিডেন্ট রাম নাথ কোবিন্দের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তিনি এবং রাষ্ট্রপতি ভবনে গার্ড অব অনার গ্রহণ করেন। রাজঘাটে তিনি মহাত্মা গান্ধীর স্মৃতিসৌধও পরিদর্শন করেন। ২০১৩ সালে ইরানের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার পর এটাই হলো রুহানির প্রথম ভারত সফর।

হায়দরাবাদের সঙ্গে সাংস্কৃতিক ও ধর্মীয় একটা বন্ধন রয়েছে ইরানের। এজন্য তিনি হায়দরাবাদ থেকেই তার ভারত সফর শুরু করার সিদ্ধান্ত নেন।
হায়দরাবাদ সফর কালে তিনি গোলচন্দ এলাকার কুতুব শাহীর সমাধি জিয়ারত করেন। তিনি সেখানকার হোটেলে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে মুসলিম বুদ্ধিজীবি, ধর্ম-পন্ডিত এবং ছাত্রদের উদ্দেশ্যে বক্তব্য প্রদান করেন। সূত্র : ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস, এনডিটিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত