প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

রানির পাশে সমাহিত হতে চান না ডেনমার্কের অভিমানী যুবরাজ

লিহান লিমা: অভিমান নিয়েই মৃত্যুদেশে চলে গেলেন ডেনমার্কের রাণী প্রিন্স মার্গারেটের স্বামী এবং দেশটির যুবরাজ হেনরিক (৮৩)। মঙ্গলবার কোপেনহেগেনের ফ্রেডেনসবুর্গ দুর্গে চিরনিদ্রায় ঘুমিয়ে পড়েন হেনরিক। এ সময় রানী মার্গারেট ও তাদের দুই ছেলে তার পাশে ছিলেন।

বুধবার তাকে রাজকীয় সম্মান ও ফুলের শুভেচ্ছায় সিক্ত করে প্রথানুযায়ী হাসিমুখে বিদায় দেন মার্গারেট। তবে রাজপরিবারের ঐতিহ্য অনুযায়ী রাজকীয় কবরস্থানে রাণীর পাশে সমাহিত হতে মৃত্যুর আগেই অস্বীকৃতি প্রকাশ করেছিলেন তিনি। হেনরিককে ফ্রান্সে তার ব্যক্তিগত এস্টেটে সমাহিত করা হবে।

১৯৬৭ সালে সে সময়ের রাজকুমারী মার্গারেটের সঙ্গে বন্ধনে জড়িয়েছিলেন যুবরাজ হেনরিক। ১৯৭২ সালে মার্গারেট রাণী হলেও রাজা হতে পারেন নি হেনরিক। রাণীর স্বামী রাজা হবেন এই বিধি থাকলেও ফ্রান্সে জন্মগ্রহণ করায় তার রাজা হওয়া নিয়ে বির্তক সৃষ্টি হয়। ফলে তাকে আনুষ্ঠানিকভাবে রাজার স্বীকৃতি দেয়া হয় নি। এই অপূর্ণতার অভিমান নিয়েই ২০১৭ সালে মৃত্যুর পর তার মরদেহ স্ত্রী মার্গারেটের পাশে শায়িত না করার ইচ্ছা পোষণ করেছিলেন প্রিন্স। তাতে সম্মতি দেন রাণীও ।

বিলাসী জীবন-যাপনের জন্য জনগণের কাছে নিন্দিত-নন্দিত ছিলেন তিনি। খাবার, ওয়াইন এবং কবিতার প্রতি ছিল তার দারুণ দূর্বলতা। জন্মস্থান ফ্রান্সের প্রতি তিনি খোলামেলাভাবেই আবেগ প্রকাশ করতেন। খাঁটি ফরাসি ভাষায় কথা বলতেন। ডেইলি মেইল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত