প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রথম লেগে ড্র’ই হলো টটেনহ্যাম-জুভেন্টাস ম্যাচ

স্পোর্টস ডেস্ক : শেষ ষোলোর প্রথম ম্যাচের শুরুতেই জোড়া গোল করে দারুণ কিছুর আশা জাগিয়েছিলেন গঞ্জালো হিগুয়াইন। কিন্তু শুরুতে দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও দুর্দান্তভাবে ঘুরে দাঁড়িয়ে ইতালিয়ান চ্যাম্পিয়নদের রুখে দিয়েছে টটেনহ্যাম হটস্পার।

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শেষ ষোলোর ম্যাচে মঙ্গলবার রাতে জুভেন্টাস স্টেডিয়ামে প্রথম লেগের উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচটি ২-২ গোলে ড্র হয়েছে।

তবে প্রথমার্ধের শেষ দিকে হিগুয়াইন পেনাল্টি মিস না করলে জয়ের আনন্দ নিয়েই মাঠ ছাড়তে পারতো গতবারের রানার্সআপরা। অন্যদিকে, দুই গোলে পিছিয়ে পড়েও ড্রয়ে শেষ করাটা টটেনহ্যামের জন্য অসাধারণ কিছু।

তাছাড়া দুটি অ্যাওয়ে গোলের বাড়তি সুবিধা নিয়েই তো ঘরের মাঠে ফিরতি পর্বে নামবে মাওরিসিও পচেত্তিনোর শিষ্যরা।

চমৎকার নৈপুণ্যে ৭৮ সেকেন্ডের মাথায় দলকে এগিয়ে দেন হিগুয়াইন। মিরালেম পিয়ানিচের ছোট করে নেওয়া ফ্রি-কিকে ডি-বক্সে বল পেয়ে কোনাকুনি ভলিতে গোলরক্ষককে পরাস্ত করেন আর্জেন্টাইন স্ট্রাইকার।

শুরুর ধাক্কা কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই দ্বিতীয় গোল খেয়ে বসে টটেনহ্যাম। নবম মিনিটে সফল স্পট কিকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন হিগুয়াইন। ইতালিয়ান উইঙ্গার ফেদেরিকো বের্নার্দেস্কি ডি-বক্সে ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টিটি পায় ইউভেন্তুস।

২৬তম মিনিটে গোলমুখে হ্যারি কেইনের হেড ক্ষিপ্রতায় ঠেকিয়ে দেন জানলুইজি বুফ্ফন। ৩০তম মিনিটে পাল্টা আক্রমণে প্রথমে গোলরক্ষককে একা পেয়ে শট নিতে দেরি করে ফেলেন হিগুয়াইন। পরে এক জনকে কাটিয়ে নেন লক্ষ্যভ্রষ্ট শট।

শুরুতেই দুই গোল খেয়ে বসা টটেনহ্যাম লড়াইয়ে ফিরতে একের পর এক আক্রমণ করতে থাকে। ফলশ্রুতিতে ৩৫তম মিনিটে সাফল্য পায় তারা। প্রতিপক্ষের একটি আক্রমণ রুখে পাল্টা আক্রমণে ডেলে আলির পাস ধরে ডি-বক্সে ঢুকে বুফ্ফনকে কাটিয়ে কোনাকুনি শটে আসরে নিজের সপ্তম গোলটি করেন কেইন।

বিরতির আগে বাঁ-দিক থেকে দারুণ ক্ষিপ্রতায় ডি-বক্সে ঢুকে পড়া ব্রাজিলিয়ান মিডফিল্ডার দগলাস কস্তা ফাউলের শিকার হলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। কিন্তু স্পট কিক ক্রসবারে মেরে হ্যাটট্রিকের সুবর্ণ সুযোগ নষ্ট করেন হিগুয়াইন।

আক্রমণ-পাল্টা আক্রমণে জমে ওঠা লড়াইয়ের ৭২তম মিনিটে সমতায় ফেরে অতিথিরা। প্রায় ২০ গজ দূর থেকে নিচু ফ্রি-কিকে লক্ষ্যভেদ করেন ডেনমার্কের মিডফিল্ডার ক্রিস্তিয়ান এরিকসেন। বুফ্ফন ডান দিকে ঝাঁপিয়ে বলে হাত লাগালেও রুখতে পারেননি।

বাকি সময়েও জুভেন্টাসের রক্ষণে বেশিরভাগ চাপ ধরে রাখে টটেনহ্যাম। পাল্টা আক্রমণে দুবারের চ্যাম্পিয়নরাও প্রতিপক্ষের সীমানায় ভীতি ছড়ালেও জয়সূচক গোলের দেখা মেলেনি।

আগামী মাসে টটেনহ্যাম হটস্পারের মাঠ ওয়েম্বলিতে হবে ফিরতি পর্ব।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ