প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আজ থেকে শুরু বাঘ গণনা

ডেস্ক রিপোর্ট : বিশ্বখ্যাত ম্যানগ্রোভ সুন্দরবনে বাঘের প্রকৃত সংখ্যা কতো তা নিয়ে রয়েছে নানা প্রশ্ন। তবে প্রশ্নবিদ্ধ বিষয়কে গ্রহণযোগ্য করতে ফের বাঘ গণনার কাজ শুরু হচ্ছে। এবারই প্রথমবারের মতো বাংলাদেশসহ ভারত, নেপাল ও ভুটানে একই সঙ্গে শুরু হচ্ছে বাঘ শুমারি। বাঘ রক্ষায় ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নির্ধারণের জন্য নেওয়া হচ্ছে এই উদ্যোগ।

জানা গেছে, আজ ১৪ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ভালোবাসা দিবসের দিন থেকেই এই গণনা শুরু হচ্ছে। এদিন থেকেই ৪৭৮টি ক্যামেরা গুনবে সুন্দরবনের বাঘ। সুন্দরবনের খুলনা ও শরণখোলা রেঞ্জের ৪৭৮ বর্গকিলোমিটার এলাকায় ক্যামেরায় ছবি তুলে, খালে বাঘের পায়ের ছাপ গুনে ও তার গতিবিধির অন্য তথ্য-প্রমাণ ব্যাখ্যা করে ২০১৯ সালের জানুয়ারিতে এবারের জরিপের প্রতিবেদন প্রকাশ করা হবে। এর আগে ২০১৬ সালের ১ ডিসেম্বর থেকে ২০১৭ সালের ১৫ মার্চ পর্যন্ত সুন্দরবনের সাতক্ষীরা রেঞ্জে ক্যামেরা ট্রাপিংয়ের মাধ্যমে তথ্য সংগ্রহ করা হয়।

সুন্দরবন একাডেমির পরিচালক রফিকুল ইসলাম খোকন আমাদের সময়কে জানান, সুন্দরবনে বাঘ বিচরণ করে এমন এলাকাগুলোতে ওই ক্যামেরাগুলো স্থাপন করা হবে। বাঘ হেঁটে গেলে স্বয়ংক্রিয়ভাবে ছবি উঠবে। ক্যামেরা ট্রাপিং বা ‘ক্যামেরাফাঁদ’ নামের এই পদ্ধতি ছাড়াও যেসব খালে বাঘ পানি খেতে আসে, সেখানে বাঘের পায়ের ছাপ গুনেও সংখ্যা গণনা হবে।

তথ্য-উপাত্ত বলছে, সুন্দরবনে সর্বশেষ ২০১৩ ও ২০১৪ সালে ক্যামেরাফাঁদ পদ্ধতিতে বাঘ গণনা করা হয়েছিল। ২০১৫ সালের মার্চে তা প্রকাশ করা হয়। খুলনা বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা বিভাগের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা মো. মদিনুল আহসান গতকাল সন্ধ্যায় জানান, এবারে বাঘের সংখ্যা গণনার পাশাপাশি বাঘ যেসব প্রাণী খায়, সেগুলোর অবস্থাও পর্যবেক্ষণ করা হবে।

এদিকে ২০১৫ সালে সরকারের বন বিভাগ প্রকাশিত জরিপে দেখা গেছে, বাঘের সংখ্যা ১০৬। একই সংস্থা ২০০৪ সালে বলেছিল, বাঘের সংখ্যা ৪৪০। বন বিভাগ সূত্র জানায়, সুন্দরবনের হিরণ পয়েন্টের নীলকমল বনফাঁড়ি থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে এবারের গণনার কার্যক্রম শুরু হবে। ওই গণনায় বন বিভাগ ও ওয়াইল্ড টিমের মোট ৫৬ কর্মী কাজ করবেন। ক্যামেরায় ছবি তোলা ও খালে বাঘের পায়ের ছাপ গুনে এই গণনার কাজ চলবে ৭৫ দিন। সুন্দরবনের মধ্যে ২৩৯টি গ্রিড পয়েন্টে এসব ক্যামেরা স্থাপন করা হবে। ২০১০ সালে বন বিভাগ ও ওয়াইল্ড লাইফ ট্রাস্ট অব বাংলাদেশ যৌথভাবে সুন্দরবনের খালে বাঘের বিচরণ পর্যবেক্ষণের ভিত্তিতে জরিপ চালায়। ২০০৪ সালে বন বিভাগ জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচির (ইউএনডিপি) সহায়তায় বাঘের পায়ের ছাপ গুনে জরিপ করেছিল। এতে বাঘের সংখ্যা এসেছিল ৪৪০টি।

সরকারি, বেসরকারি ও ব্যক্তি পর্যায়ের জরিপ বলছেÑ গত ৪২ বছরে বিশ্বের সর্ববৃহৎ এই ম্যানগ্রোভ বনে বাঘের সংখ্যা রোডম্যাপসহ সংসদ নির্বাচনের সব কাজে আরও গতি পাবে। আমরা চাই সব দল আগামী সংসদ নির্বাচনে অংশ নিক। সে লক্ষ্যে কমিশন কাজ করে যাচ্ছে।

বর্তমান ইসির অধীনে কুমিল্লা ও রংপুর সিটিসহ স্থানীয় সরকার পর্যায়ের কিছু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এর মধ্যে কুমিল্লা নির্বাচনে কিছু বিশৃঙ্খলা হলেও রংপুর সিটি নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ায় বর্তমান ইসির প্রতি কিছুটা আস্থা জেগেছে। চলতি বছর জাতীয় সংসদ নির্বাচন ছাড়াও পাঁচ সিটি করপোরেশনে ভোটগ্রহণ করতে হবে।

সিটি নির্বাচন
গাজীপুর সিটি করপোরেশনে ভোটগ্রহণ হয় ২০১৩ সালের ৬ জুলাই। তাই আবার ভোট করতে হবে এ বছর ৪ সেপ্টেম্বরের মধ্যে। সিলেট সিটিতে ভোট হয় ২০১৩ সালের ১৫ জুন। ভোট করতে হবে ৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে। খুলনা সিটিতে ভোট করতে হবে ২৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে। রাজশাহীতে ভোট করতে হবে ৫ অক্টোবরে মধ্যে। এ ছাড়া বরিশাল সিটিতে ভোট করতে হবে আগামী ২৩ অক্টোবরের মধ্যে। এ বছরের মাঝামাঝি একই দিনে এসব সিটিতে ভোট করতে চায় ইসি। অন্যদিকে আগামী ডিসেম্বরে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের প্রস্তুতি নিচ্ছে ইসি। আমাদের সময়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত