প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চতুর্থ ওয়ানডে’তে ৭৬ রানের বিশাল জয়
২৫ বছরের আক্ষেপ ঘোঁচালো ওডিআই সিরিজ জিতে

কেএম হোসাইন : দক্ষিণ-আফ্রিকা’র সাথে প্রথম কোন দ্বিপাক্ষিক সিজির জয় করলো টিম ইন্ডিয়া। চতুর্থ ওয়ানডে’তে দক্ষিণ-আফ্রিকাকে ৭৬ রানের বিশাল ব্যবধানে হারিয়ে ৪-১ সিরিজ জিতে নিল ভারত। সেই সাথে ইতিহাসও গড়লো  রবি শাস্ত্রী’র শিষ্যরা।

মঙ্গলবার পোর্ট এলিজাবেথ স্টেডিয়ামে টসে জিতে দক্ষিণ-আফ্রিকা নতুন অধিনায়ক মার্কাম বিরাট কোহলিকে আগে ব্যাটিংয়ের পাঠায়। প্রথমে ব্যাট করে রোহিত শর্মা’র সেঞ্চিরেতে ৭ উইকেটে ২৭৬ রানের লড়াকু ইনিংস খেলে ভারত। আশার আলো অনেক দিন পরে রোহিতের ব্যাটে রান ফেরা।

কিন্তু শুরুটা তাদের পক্ষে যায়নি। দলীয় ৪৮ রানে শিখর ধাওয়ানকে (৩৪) ফেরালেও রোহিত শর্মার সঙ্গে বিরাট কোহলির ১০৫ রানের জুটিতে ঘুরে দাঁড়ায় ভারত।

কোহলি ৩৬ রানে রান আউট হলে রোহিত ৬০ রানের জুটি গড়েন শ্রেয়াস আয়ারের সঙ্গে। ৯৬ রানে তাবারিজ শামসির হাতে জীবন পাওয়া রোহিত সেঞ্চুরি করেন ১০৭ বলে। ১২৬ বলে ১১৫ রান করে তিনি আউট হন।

এরপর কেবল আয়ারের ৩০ রান ছিল বলার মতো। ডেথ ওভারে লুঙ্গি এনগিদি তোপ দাগালে ২৭৪ রানে থামতে হয় ভারতকে। তারা উইকেট হারায় ৭টি। এনগিদি ৪ উইকেট পান ৫১ রান দিয়ে।

দক্ষিণ আফ্রিকা ব্যাটিংয়ে নেমে ভালো জবাব দিচ্ছিলো।

আমলা-মার্কাম ওপেনিং জুটি ভালোই শুরু করে। কিন্তু বুমরাহ’র বলে কোহলির তালু বন্দি হয়ে সাজ ঘরে ফেরে মার্কাম। এতেই ছন্দ পতন ঘটে দক্ষিণ-আফ্রিকার। তারপরে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায়। হার্দিক পান্ডিয়া’র পরপর জোড়া আঘাতে ডুমিনি ১ ও ভিলিয়ার্স ৬ রানে আউট হলে। ৫২-১ রান থেকে ৬৫ রানে ৩ উইকেট পড়ে চাপে পড়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা।

এই ধাক্কা তারা কাটায় হাশিম আমলা ও ডেভিড মিলারের ৬২ রানের জুটিতে। মিলার ৩৬ রানে যুজবেন্দ্র চাহালের শিকার হলে ভাঙে এ জুটি। হেনরিক ক্লাসেনের সঙ্গে আমলা ৩৯ রান যোগ করে বিদায় নিলে আর কেউ দাঁড়াতে পারেনি কুলদীপ যাদবের পেসে। আমলা ৭১ রান করে পান্ডিয়ার সরাসরি থ্রোতে রান আউট হন। দ্বিতীয় সেরা ৩৯ রান করেন ক্লাসেন।

৫৭ রানে কুলদীপ ৪ উইকেট নিয়ে ভারতের সিরিজ জয়ে অবদান রাখেন। পান্ডিয়া ও চাহাল ২টি করে উইকেট নেন।

সূত্র : ইএসপিএস ক্রিইকনফো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত