প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাক্ষাৎকারে রাজেকুজ্জামান
সকল দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে

রফিক আহমেদ : বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক দল (বাসদ) কেন্দ্রীয় নেতা রাজেকুজ্জামান রতন বলেছেন, দেশের সকল দুর্নীতিবাজদের বিরুদ্ধে পক্ষপাতহীনভাবে শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে। যাতে আর কোনো দুর্নীতিবাজ দুর্নীতি করতে সাহস না পায়। শুক্রবার একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এ প্রতিবেদককে এসব কথা বলেন।

রাজেকুজ্জামান রতন বলেন, ক্ষমতায় থাকলে সুযোগ-ক্ষমতার বাইরে থাকলে শাস্তি, এই নীতি নয়, দুর্নীতির বিরুদ্ধে সংগ্রাম পক্ষপাতহীনভাবে শাস্তি দিতে হবে। দুর্নীতির মামলায় খালেদা জিয়া আদালত দ্বারা অপরাধী প্রমাণিত হওয়ায় ৫ বছরের কারাবাসের সাজা পেয়েছেন। প্রশ্ন হচ্ছে, এই বিচার এবং শাস্তি কি দেশের জনগণকে আশ্বস্ত করছে? জনগণ কি ভাবছে, যে ক্ষমতায় থেকে ক্ষমতার অপব্যবহার করলে কেউ আইনের ও বিচারের হাত থেকে রেহাই পাবে না। এই বিশ্বাস এবং আস্থা শক্তিশালী হলে তা দেশের জন্য ইতিবাচক প্রভাব ফেলবে। আমরা যারা দীর্ঘদিন ধরে দেশের সম্পদ লুটপাটের বিরুদ্ধে লড়ছি তাদের জন্য এ ঘটনা আশাবাদ সৃষ্টি করবে।

এর আগে কোকোর টাকা ফিরিয়ে এনে এরকম না হলেও একটু আলোড়ন সৃষ্টি হয়েছিল। কিন্তু সে আলোড়ন বুদবুদের মত মিলিয়ে গিয়েছিল যখন গত ১০ বছরে দেশ থেকে ৬ হাজার ৫০০ কোটি ডলার বা ৫ লাখ কোটি টাকা পাচার হওয়ার কথা পত্র পত্রিকায় প্রকাশ হয়েছিল। বাংলাদেশ ব্যাংকের ৮০০ কোটি টাকা, সোনালি, বেসিক ও জনতা ব্যাংকের প্রায় ১৩ হাজার কোটি টাকা ঋণের নামে লুটপাট হয়ে যাওয়া, রাষ্ট্রের সম্পদ বন, নদী, খাল ক্ষমতাসীনদের দখলে চলে যাওয়া দেখে প্রশ্ন জাগে দুর্নীতি বিরোধী পদক্ষেপ পক্ষপাতহীন ভাবে হচ্ছে কি? ক্ষমতাসীনদের দুর্নীতি প্রশ্রয় পাবে, ক্ষমতার বাইরে থাকলে শাস্তি জুটবে- এ নীতিতে কি দেশ চলবে?

তিনি আরো বলেন- বিদ্যুৎ, হাইওয়ে, ফ্লাই ওভার ও সেতু সব খাতে দুর্নীতিবাজরা কি আইনের হাতের আওতায় আসবে? সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা দুর্নীতির বিরুদ্ধে যত তীব্রভাবে কথা বলছেন তাতে কানাডায় বেগম পাড়া, মালয়েশিয়ায় সেকেন্ড হোম যারা বানিয়েছে তাদেরকে আইন ও বিচারের আওতায় আনা এখন সময়ের দাবি। তা না হলে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ঘায়েল করার জন্য দুর্নীতির অভিযোগকে ব্যবহার করা হয়েছে বলে জনমনে ধারণা আরও দৃঢ় হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত