প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জার্মানিতে কোয়ালিশন সরকার গঠন, দিনশেষে মের্কেলই জয়ী

লিহান লিমা: নির্বাচনের পর টানা চারমাস ধরে অনিশ্চয়তার পর এবার কোয়ালিশন গড়তে সক্ষম হলেন জার্মান চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মের্কেল। বুধবার মধ্য-বামপন্থী বিরোধীদের সঙ্গে ঐক্যমতে পৌঁছেছেন ইউরোপের এই স্থিতিশীল নেত্রী।

মের্কেলের ক্রিশ্চিয়ান ডেমোক্রেটিক ইউনিয়ন (সিডিইউ), তাদের ব্র্যাভেরিয়ান সহযোগি ক্রিশ্চিয়ান সোশ্যাল ইউনিয়ন (সিএসইউ) এবং মধ্য-বামপন্থী সোশ্যাল ডেমোক্রেট পার্টি (এসপিডি)র নেতারা কোয়ালিশন সরকার গঠনের বিষয়ে একজোট হয়। তবে কোয়ালিশন সরকার চূড়ান্ত করতে আনুষ্ঠানিকভাবে এসপিডির ৪ লাখ ৬০ হাজার সদস্যের অনুমোদনের প্রয়োজন হবে। এসপিডি’র সদস্যরা এই সিদ্ধান্তে ভোট দিলেই চার মাস পর বুন্ডেসটার্গে একটি স্থিতিশীল সংসদ দেখা যাবে।

তবে কোয়ালিশন চুক্তি চূড়ান্ত হবার পর দলের অ্যাজেন্ডা কার্যকর করতে বিশেষ কিছু ক্ষেত্রে মন্ত্রিত্বের দাবিতে অটল থেকেছে ৩ দলই। সিডিইউ নেত্রী মের্কেল আগেই বলেছিলেন, সব পক্ষকে কষ্ট সহ্য করে অনেক ছাড় মেনে নিতে হবে। সংবাদমাধ্যমগুলোর আগাম খবরে বলা হয়, এসপিডি চাইছে পররাষ্ট্র, শ্রম এবং অর্থ মন্ত্রণালয়কে নিয়ন্ত্রণ করতে, দলের নেতা মার্টিন শুলৎস পররাষ্ট্রমন্ত্রী হতে পারেন। অন্যদিকে মের্কেলের দিকের সবচেয়ে রক্ষণশীল নেতা সিএসইউ’র হস্ট্র সিহোফার স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বনে যেতে পারেন।

দুই পক্ষই ইয়ামেন যুদ্ধ ইস্যুতে জার্মানির অস্ত্র রপ্তানি নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে ঐক্যমতে পৌঁছেছে। আন্তর্জাতিক জলবায়ূ চুক্তির সুরক্ষার বিষয়ে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ সিডিইউ ও এসপিডি। তবে অভিবাসন ইস্যুতে কি চুক্তি হয়েছে তা জানা যায় নি। অন্যদিকে ইউরোপের আরো বিনিয়োগ ও বাজেট প্রয়োজন বলে মনে করে দুই দল। এসপিডি জার্মানিতে বাড়ি ভাড়া বৃদ্ধির সমস্যা সমাধানের দাবি জানায়। এছাড়া দুই দল শিক্ষা, প্রযুক্তিকরণ, আধুনিকায়ন ও কৃষিখাতের ওপর জোর দেয়ার কথা বলে।
সিএনএন জানায়, এই ঘোষণা মের্কেলের জন্য একটি দীর্ঘ প্রত্যাশার স্বস্তির নিঃশ্বাস। যিনি সেপ্টেম্বরের নির্বাচনের পর থেকেই সরকার গঠন নিয়ে বিব্রতকর পরিস্থিতি মোকাবেলা করে আসছেন। স্পাইজেল, দ্য লোকাল।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত