প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে আবারও অভিযোগ

হ্যাপী আক্তার: এবার সমঝোতার নামে স্ত্রী ইকোর পরিবারকে জিম্মি করে নিজের বিরুদ্ধে স্বীকারোক্তি আদায়ের অভিযোগ উঠেছে ডিআইজি মিজানের বিরুদ্ধে। শিখিয়ে দেওয়া তদন্ত কমিটির সামনে না বললে সবাইকে মেরে ফেলার হুমকিও দিয়েছেন মিজান। নিজেকে ডিআইজি মিজানের স্ত্রী দাবি করে মরিয়ম আক্তার ইকো জানিয়েছেন, দুটো সাজানো মামলার ২১ দিন জেলে থাকার পর জামিনে বের করে আরেকটি বাসায় বন্দি করে রাখা হয় আমাকে। আর তদন্ত কমিটির সামনে সকল তথ্য প্রকাশ করবেন বলেও জানান ইকো।

অস্ত্রের মুখে তরুণীকে তুলে নিয়ে নির্যাতন এবং বিয়ের পর তা ধামাচাপা দেওয়াকে নিয়ে হইচই পড়ে ডিআইজি মিজানের নামে। নারী কেলেঙ্কারির নানা অপকর্ম সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশ পাবার পর ঢাকা অতিরিক্ত কমিশনারের পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয় তাকে।গঠন কারা হয় তদন্ত কমিটি। ভোক্তভূগী মরিয়ম আক্তার ইকোর সাক্ষও নেওয়া হয়।

মরিয়ম আক্তার ইকো বলেন, আমি মিথ্যা কথা বলিনি তবে সত্যটাকে গোপন করে রেখেছি, তাদের কথা অনুযায়ী। তবে বিয়েটাকে অস্বীকার করতে পারেননি কারণ মিজানের সাথে বিয়ে হয়েছে তাই।

জেল থেকে বের করে এনে বসিলার বাড়িতে তুলা হয় ইকোকে। তখন থেকেই সেখানে তিনি বন্দি আছেন বলে অভিযোগ ইকোর।

অন্য দিকে নিজের চাকরি বাঁচাতে ড্রাইভার গিয়াস এবং ভাগিনা সাইফুলের মাধ্যমে তদন্ত কমিটির সামনে কথা বলার জন্যে চাপ দেয় মিজান। এমনকি শেষ পর্যন্ত তদন্ত রিপোর্ট ডিআইজি মিজানের দিকে আসবে বলে দাবি তাদের।

ইকোর অভিযোগ বিয়ের ঘটনা প্রকাশ না করার জন্য মারধোর এবং হত্যার হুমকি দেয় মিজান। হত্যার হুমকি দিয়ে ইকোর মা কুইন আক্তারকে জোর করে আপোশ নামায় সাক্ষর করতে বাধ্য করেন মিজান।

সূত্র : যমুনা টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত