প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শুক্র ও শনিবার ভোরে ঘটে বেশিরভাগ ছিনতাই

সুজন কৈরী : রাজধানীতে সক্রিয় রয়েছে অর্ধশত ছিনতাইকারী চক্র। এদের বেশিরভাগই শুক্র ও শনিবার ভোরের দিকে ছিনতাই করে থাকে। কারণ ওইদিন ও সময়ে রাজধানীর সড়কগুলো বেশি ফাঁকা থাকে। একদিনে ৪ থেকে ৫টি ছিনতাইয়ের টার্গেট নিয়ে রাস্তায় বের হয় চক্রের সদস্যরা। ছিনতাই শেষে পালানোর জন্য তারা প্রাইভেটকার ব্যবহার করে থাকে। তিন থেকে চার জনের গ্রুপে ভাগ তারা ছিনতাই করে চক্রের সদস্যরা। গত মঙ্গলবার রাজধানীর মিরপুরের সনি সিনেমা হলের সামনে থেকে এ চক্রের দুই সদস্যকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে এমন তথ্য পেয়েছে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

পিবিআই জানায়, চক্রের সদস্যরা রাজধানী ও এর আশপাশের এলাকায় বেশিরভাগ রিকশা যাত্রীদের টার্গেট করে। প্রাইভেটকার নিয়ে যাত্রীদের কাছে থাকা ব্যাগ, ল্যাপটপ, মহিলাদের ভ্যানিটি ব্যাগ সুযোগ বুঝে টান দিয়ে ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এছাড়া কখনো কখনো চাপাতি ও ছোরা ঠেকিয়ে রিক্সার গতিরোধ করে ভয় দেখিয়ে যাত্রীদের সর্বস্ব লুটে নেয়। ছিনতাইয়ের সময় চলন্ত রিক্সা বা প্রাইভেটকার থেকে যাত্রীরা পরে গিয়ে হতাহত হলো কিনা সে বিষয়ে তারা খোঁজ নেয় না। চক্রের সদস্যরা আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ জনগনের দৃষ্টি এড়াতে প্রাইভেটকারের নম্বর প্লেট বরাবর পিছনে উঁচু বাম্পার ব্যবহার করে। চক্রের সদস্যরা একে অপরের সঙ্গে মোবাইল ফোনে যোগাযোগ করে গাড়ীতে উঠে।

পিবিআই ঢাকা মেট্রোর বিশেষ পুলিশ সুপার আবুল কালাম আজাদ জানান, একটি ছিনতাইয়ের ঘটনার অনুসন্ধান করতে গিয়ে দুজনকে গ্রেফতারের পর জিজ্ঞাসাবাদে এমন চাঞ্চল্যকর তথ্য পাওয়া গেছে।

অতি সম্প্রতি রাজধানীতে ছিনতাইকারী চক্রের কর্মকাণ্ড বেড়েছে। গণমাধ্যমকর্মীসহ বিভিন্ন পেশার অনেকেই এ চক্রের কবলে পড়ে টাকা-পয়সাসহ মূল্যবান জিনিস খুইয়েছেন। এছাড়া হতাহতও হওয়ার ঘটনাও ঘটেছে।

পিবিআই জানায়, গত ২৬ জানুয়ারি মিরপুর এলাকা থেকে মমতা মল্লিক ও তার বান্ধবির কাছ থেকে তিন ছিনতাইকারী ২টি স্মার্ট ফোন ও প্রায় সাড়ে ৪ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেয়। বিষয়টি জানার পর মমতা মল্লিকের মোবাইল ফোনের কল লিস্ট ও আইএমই আইএর মাধ্যমে ছিনতাইকারীদের অবস্থান শনাক্ত করা হয়। পরে পিবিআই ঢাকা মেট্রোর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার বশির আহমেদের নেতৃত্বে মিরপুরের সনি সিনেমা হলের সামন থেকে আব্দুল আউয়াল হাওলাদার ও মো. বেলাল নামেন দুই ছিনতাইকারীকে গ্রেফতার করা হয়। তাদের কাছ থেকে উদ্ধার করা হয় ছিনতাই কাজে ব্যবহৃত সাদা রংয়ের করলা ব্রান্ডের একটি প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্রো-গ ১৩-৪৬৫৬) ও ছিনতাই হওয়া মোবাইল ফোন।

আবুল কালাম আজাদ বলেন, গ্রেফতার দুই ছিনতাইকারী একাধিক ছিনতাই ও হত্যা মামলার আসামী। এছাড়া তাদের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার মিরপুর থানায় আরো একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে। পলাতক অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত