প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জিয়া চ্যারিটেবল মামলা
আদালতের কার্যক্রম ফের শুরু

রাশিদ রিয়াজ : জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় শুনানির সময় আদালতে দু’পক্ষের আইনজীবীদের মধ্যে বাক-বিতণ্ডা ও তুমুল উত্তেজনার এক পর্যায়ে আদালতের কার্যক্রম স্থগিত ঘোষণা করা হয়। এরপর ফের আদালতের কার্যক্রম শুরু হবার পর দু’পক্ষের আইনজীবীরা যুক্তিতর্ক  শুরু করেন।

এর আগে বুধবার বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় হাজিরা দিতে আদালতে উপস্থিত হন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া।

আদালতে শুনানির শুরুতে দু’পক্ষের আইনজীবীদের হট্টগোলের কারণে বিচারক বিব্রত বোধ করে। এসময় আদালত সাময়িকভাবে কার্যক্রম স্থগিত করে বিচারক এজলাস ত্যাগ করেন।

বিএনপি প্রধান আদালতে পৌঁছানোর আগেই বেলা ১১ টা ১৮ মিনিটে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শুরু হয়।

ওই মামলার আসামি জিয়াউল হক মুন্নার পক্ষে যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন তার আইনজীবী আমিনুল ইসলাম।

গত ২৫ জানুয়ারি (বৃহস্পতিবার) আদালত-৫ এর বিচারক ড. আখতারুজ্জামান ৩০, ৩১ জানুয়ারি ও ১ ফেব্রুয়ারি জিয়া চ্যারিটেবল দুর্নীতি মামলায় যুক্ততর্কের জন্য দিন ধার্য করেন।

ওই দিন জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার যুক্তিতর্ক উপস্থাপন শেষ হয়েছে। আগামী ৮ ফেব্রুয়ারি ওই মামলার রায় ঘোষণা করা হবে।

খালেদা জিয়ার হাজিরা ঘিরে আদালত ও এর আশপাশের এলাকায় বাড়তি নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে। বিপুল সংখ্যক পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এছাড়া আদালতের প্রধান ফটকে স্ক্যানার বসিয়ে তল্লাশি করে ভেতরে ঢোকানো হয়। মামলার এজাহার থেকে জানা গেছে, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের নামে অবৈধভাবে ৩ কোটি ১৫ লাখ ৪৩ হাজার টাকা লেনদেনের অভিযোগ এনে খালেদা জিয়াসহ চারজনের বিরুদ্ধে ২০১০ সালের ৮ আগস্ট তেজগাঁও থানায় মামলা করে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত