প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কুমিল্লায় ২০১৭ সালে ১০৮ জন খুন

জান্নাতুল ফেরদৌসী: কুমিল্লায় ২০১৭ সালে অসংখ্য সংঘর্ষের পাশাপাশি ১শ ৮টি হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। আতঙ্ক আর উৎকণ্ঠায় কেটেছে পুরো বছর। আইনজীবী ও সমাজবিদদের অভিযোগ, বিচারহীনতার কারণে জেলায় অপরাধ বেড়েছে। আর সীমান্তবর্তী জেলা হওয়ায় অপরাধীরা প্রতিবেশী রাষ্ট্রে পালিয়ে যাচ্ছে বলে জানায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশ। তবে পুলিশ সুপারের দাবি, গেলো ১০ বছরের তুলনায় কুমিল্লায় অপরাধ প্রবণতা কমেছে।

২০১৭ সালের জানুয়ারির শুরুতে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে কুমিল্লা শহরের তেলিকোনা এলাকায় দুই পক্ষের সংঘর্ষে ১০ জন আহত হন। রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে পুলিশ। একইমাসে চাঁনপুর এলাকায় চাঁদা না পেয়ে, প্রবাসী সাদেকুর রহমানকে পিটিয়ে হত্যা করে বিল্লাল বাহিনী। এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতার করা হলেও জামিনে বেরিয়ে আসেন মামলার আসামিরা।

একই বছরের মার্চে আলাদা ২টি অভিযান চালিয়ে নগরীর ধর্মপুর ও শুভপুর এলাকা থেকে বিপুল পরিমাণ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার করে র‌্যাব।

বছরের শেষ দিকে অপহরণের ৫ দিন পর হোমনার দুলালপুর উচ্চ বিদ্যালয়ের সেফটিক ট্যাংকি থেকে উদ্ধার করা হয় স্কুলছাত্র জাহিদের লাশ। বিচারহীনতার কারণেই এসব অপরাধ বেড়েছে বলে মনে করেন আইনজীবী ও সমাজবিদরা।

কুমিল্লার স্পেশাল পিপি অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান বলেন, সুষ্ঠু বিচার হয় না বলেই সন্ত্রাসীরা দিন দিন সাহসী হয়ে ওঠছে।

সীমান্তবর্তী জেলা হওয়ায় অপরাধীরা প্রতিবেশী রাষ্ট্রে পালিয়ে যায় বলে জানায় জেলা গোয়েন্দা পুলিশ।

কুমিল্লার ডিবির ওসি মঞ্জুরুল আলম বলেন, অপরাধ করে সীমন্তের ওপারে চলে যায়। সীমান্ত দিয়ে অনেক সময় মাদক ও অস্ত্র আনে।

অবশ্য পুলিশ সুপারের দাবি, গেলো ১০ বছরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী ২০১৭ সালে অপরাধ প্রবণতা তুলনামূলক কমেছে।

কুমিল্লার পুলিশ সুপার মো. শাহ আবিদ হোসেন বলেন, ‘তুলনামুলকভাবে অপরাধের হার কম আছে। অপরাধ যেমনই হোক না কেনো আমরা সঙ্গে সঙ্গে ব্যবস্থা গ্রহণ করি।’

২০১৭ সালে জেলার ১৭টি থানায় দায়ের করা ১’শ ৮টি হত্যা মামলার অধিকাংশ আসামি জামিনে রয়েছেন। সূত্র: সময় টিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত