প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাঁচবারের মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকারের অ্যাকাউন্টে মাত্র ২৪১০ টাকা!

অনল রায় চৌধুরী, আগরতলা : বাংলাদেশের প্রতিবেশি ভারতের রাজ্য ত্রিপুরার টানা পাঁচবারের মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার। অথচ তার অ্যাকাউন্টে টাকা আছে মাত্র ২৪১০ টাকা। আর হাতে আছে নগদ ১৫২০ টাকা। নির্বাচন কমিশনের কাছে দেওয়া হলফ নামায় এমনটাই জানিয়েছেন ৬৯ বয়সী এই বাম নেতা।

ভারতের বাম রাজনীতির আইকন হিসেবে পরিচিত মানিক সরকার কখনো আয়কর রিটার্ন দাখিল করেননি৷  এই নেতা তাঁর আয়ের পুরো টাকাই জমা দেয় তাঁর দল সিপিএমের পার্টি তহবিলে এবং সেখান থেকে প্রতি মাসে ৫০০০টাকা করে পান৷

নির্বাচন কমিশনে দেওয়া হলফ নামায় তিনি জানিয়েছেন, তার হাতে নগদ ১৫২০ এবং একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকে তাঁর অ্যাকাউন্টে রয়েছে ২৪১০ টাকা৷ তাঁর আর কোনও অ্যাকাউন্ট নেই৷

গত সোমবার ত্রিপুরার বাংলাদেশ সীমান্তবর্তী নির্বাচনী এলাকা ধনপুর আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে তিনি মনোনয়ন দাখিল করেছেন। এ সময় দেওয়া হলফনামায় তিনি উল্লেখ করেছেন, তার কোনও কৃষি জমি নেই৷ তিনি বাস করেন মুখ্যমন্ত্রীর বাসভবনে৷  স্ত্রী পাঞ্চালী ভট্টাচার্য এক অবসরপ্রাপ্ত কেন্দ্রীয় সরকারি কর্মচারি৷ তাঁর কাছে রয়েছে নগদ ২০১৪০ টাকা এবং দুটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টে রয়েছে যথাক্রমে ১২৪,১০০ এবং ৮৬৪৭৩ টাকা৷

হলফনামায় তিনি আরো উল্লেখ করেছেন, তাঁর তিনটি ফিক্সড ডিপোজিট রয়েছে যথাক্রমে ২ লক্ষ, ৫ লক্ষ এবং ২.২৫ লক্ষ টাকার। তাছাড়া রয়েছে ২০ গ্রাম সোনা ৷ পৈত্রিক সূত্র পাওয়া ৮৮৮.৩৫ বর্গফুট জায়গায় ১৫ লক্ষ টাকা খরচ করেছে যার বর্তমান বাজার মূল্য ২১ লক্ষ টাকা৷ তিনি ২০১১-১২ সালে শেষ আয়কর রিটার্ন ফাইল করেছিলেন তখন ৪,৪৯,৭৭০ টাকা ৷

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত