প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তৈমূরের কাছ থেকে হাজার টাকা বকশিস আদায় শামীমের

নিজস্ব প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জে বিএনপি নেতা তৈমূর আলম খন্দকার ও আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমানের মধ্যে দেখা হওয়ার পর অভাবিত একটি ঘটনা ঘটল। দুই জনের মধ্যে কুশল বিনিময়ের পর কোলাকুলি হলো। আবার তৈমূরের কাছ থেকে এক হাজার টাকা বকশিস নিলেন শামীম।

মঙ্গলবার নারায়ণগঞ্জ জেলা আইনজীবী সমিতি নির্বাচনে ভোটগ্রহণ হয়। দুপুরে আদালত এলাকায় যান শামীম ওসমান। সেখানে ছিলেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা তৈমূরও।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, দুপুর সোয়া দুইটার দিকে আইনজীবী সমিতির ভবনের সামনের গেটে দেখা হয় দুই নেতার। তখন তৈমূরকে সালাম দিয়ে শামীম ওসমান বলেন, ‘আপনাকে তো বড় নেতা বানিয়ে দিলাম। এরেস্টের পর বলেছিলেন আমার সঙ্গে টক শোর কারণে নাকি গ্রেপ্তার হয়েছেন। আমি গ্রেপ্তার করিয়েছি বলেছিলেন। তো আমার বকশিস দেন এক হাজার টাকা।’

তখন তৈমূর পকেট থেকে এক হাজার টাকা বের করে শামীম ওসমানের হাতে দেন। তৈমূর তখন বলেন, ‘স্কুল জীবনে তো একশো টাকা করে নিতা। এখন কি এক হাজার দিলে হবে নাকি বেশি দিতে হবে?’।
তখন শামীম ওসমান বলেন, ‘এক হাজারেই হবে। ’ দুই জনের মদ্যে এই কথোপকথন চলছিল হাসিমুখে। কোলাকুলিও করেন দুজন।
সেখানে উপস্থিত দুই দলের সমর্থক আইনজীবীরাও এই দৃশ্য দেখে পুলকিত হন। একজন আইনজীবী বলেন, দুই জন দুই দলের নেতা হলেও প্রকাশ্যে এমন সদ্ভাব দেখানোয় রাজনীতিতে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএনপি নেতা তৈমূর আলম খন্দকার বলেন, ‘শামীম ছোটবেলায় স্কুল জীবনেও আমার কাছ থেকে টাকা নিত। এখনও সে আগের মতই করে। তার এই শিশুসুলভ আচরণটি আমার খুব পছন্দ।’

২৩ জানুয়ারি তৈমূর আলম খন্দকারকে আদালতপাড়ার প্রধান গেটের সামনে থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তখন তৈমূর অভিযোগ করেছিলেন, শামীম ওসমানের সঙ্গে টক শোতে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়ের কারণেই তাকে পুলিশ হেনস্থা করে গ্রেপ্তার করেছে।

নারায়ণগঞ্জ থেকে উচ্ছেদ করা হকারদের আবার বসানো নিয়ে ১৬ জানুয়ারি নারায়ণগঞ্জে শামীম ওসমানের অনুসারীদের সঙ্গে ব্যাপক সংঘর্ষ হয় মেয়র সেলিনা হায়াৎ আইভীর অনুসারীদের।

এরপর গত ২২ জানুয়ারি ও ২১ জানুয়ারি দুটি বেসরকারি টেলিভিশনে টক শোতে আলোচক ছিলেন শামীম ওসমান ও তৈমূর আলম খন্দকার। তারা নারায়ণগঞ্জে সাম্প্রতিক হকার ইস্যুতে স্ব স্ব অবস্থান তুলে ধরেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত