প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পাম অয়েলের উৎপাদনে রেকর্ড গড়েছে ইন্দোনেশিয়া

অতনু সিংহ: চকলেট থেকে শুরু করে শ্যাম্পু, এই ধরণের দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র প্রস্তুত করতে পাম অয়েল ব্যবহার করা হয়। এই পাম অয়েল উৎপাদনে রেকর্ড গড়েছে ইন্দোনেশিয়া।

২০১৭ সালেই পাম অয়েল উৎপাদনের ক্ষেত্রে রেকর্ড গড়েছিল তারা। পাম অয়েলের উৎপাদন বৃদ্ধির ধারাবাহিকতা ২০১৮ সালেও অব্যাহত থাকবে বলে তাদের ধারণা। জানা গেছে, মূলত আবহাওয়ার কারণেই পাম অয়েল উৎপাদনে ইন্দোনেশিয়া রেকর্ড গড়ে চলেছে। ইন্দোনেশিয়ার পাম অয়েল অ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক টোগার সিতাংগাঙ মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, এ বছর অর্থাৎ ২০১৮ সালে পাম অয়েলের উৎপাদন কমপক্ষে ১০ শতাংশ বৃদ্ধি পাবে।

২০১৭ সালে ইন্দোনেশিয়ায় পাম অয়েলের উৎপাদন বৃদ্ধির হার ছিল ১৮ শতাংশ এবং উৎপাদনের পরিমাণ ছিল ৩৮.২ মিলিয়ন মেট্রিক টন। পাম কারনেল অয়েল মিলিয়ে মোট পাম অয়েল উৎপাদনের পরিমাণ ছিল ৪২ মিলিয়ন মেট্রিক টন। ২০১৬ সালে এর পরিমাণ ছিল ৩৫.৬ মিলিয়ন মেট্রিক টন। প্রসঙ্গত, উৎপাদন বৃদ্ধির সঙ্গে সঙ্গে ইন্দোনেশিয়ার পাম অয়েলের চাহিদাও বেড়েছে বিশ্ব বাজারে বৃদ্ধি পেয়েছে।

সর্বাধিক পঠিত