প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মাদককে ‘না’ বলুন


ডা. ইকবাল আর্সলান : অনেক ছাত্র ইয়াবা, ফেন্সিডিল গ্রহণ করে থাকে পরীক্ষার আগে। ইয়াবাতে এনসোডামিন থাকে। এটা নিদ্রাহীনতার কাজ করে। মনে হয় যেন এনার্জি বেড়ে গিয়েছে। ’৭০ এর দশকে মেডিকেলে দেখেছি, অনেক ছাত্র ফেন্সিডিল, ইয়াবা গ্রহণ করতো। তারা যে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সেটা তারা বুঝতে পারে না। কিন্তু এটা গ্রহণের ফলে ব্রেনের ক্ষতি হয়। অনেকে ভায়োলেন্ট হয়ে যায়। সুইসাইড প্রবণতা বেড়ে যায়। কিছুদিন আগে একটা মেয়েকে ফেলে দিয়েছিল তার মালিক। সেই মালিক ইয়াবা গ্রহণ করতো। ছাত্রছাত্রীরা ইয়াবার খরচ চালাতে চুরি করে। স্বাভাবিক হাত খরচ থেকে ইয়াবা কেনা যায় না। এটা খুবই খারাপ ড্রাগ। ক্ষণস্থায়ী আনন্দের জন্য অনেক বড় ধরনের ক্ষতি হয়। পরিবারের লোকজনের সাথে খারাপ ব্যবহার করে। মারধর করে। টাকার জন্য পরিবারে অশান্তি করে। ইয়াবার হাত থেকে বাঁচতে হলে ছাত্র-ছাত্রীদের সচেতনতা বাড়াতে হবে। মাদক থেকে বের হতে হলে নিজের ইচ্ছাই যথেষ্ট। মাদককে ‘না’ বলুন।
পরিচিতি : প্রেসিডেন্ট, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ
মতামত গ্রহণ : সানিম আহমেদ
সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত