প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হাসপাতালে মৃত্যু শয্যায় থেকেও মা-ছেলে আসামী

ইসমাঈল হুসাইন ইমু : দুর্বৃত্তদের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছেন মা ও তার ছেলে। মা সাফিয়া খাতুন (৫০) বরিশাল শেরে-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আর ছেলে ইউসুফ হাওলাদার (২৭) ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। গত ২২ জানুয়ারি দুপুর দেড়টার দিকে বরগুনা জেলা সদর থানার ৭ নম্বর ঢলুয়া ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে। ওইদিন সাফিয়া খাতুনের স্বামী আবদুল রশীদ হাওলাদার বাদী হয়ে বরগুনা সদর থানায় ১১জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।

অপরদিকে আসামি পক্ষ থানা পুলিশ মেনেজ করে বাদী পক্ষের লোকজনদের আসামি করে ঘটনার দুদিন পর গত ২৪ জানুয়ারি একই থানায় পাল্টা মামলা দায়ের করে। ওই মামলায় সাফিয়া খাতুন ও ছেলে ইউসুফকেও আসামি করা হয়েছে। অথচ দুই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন মা ছেলের অবস্থা আশঙ্কাজনক।

এদিকে সোমবার এজাহারভুক্ত ৫ নম্বর আসামি রুবেল (২৩), মতিউর রহমান (৬৫), সেলিম (৫০), সোনিয়া ৯২২), আল-আমিন (৪০ ও মাসুম বিল্লাহ ওরফে রাসেল জামিনে মুক্তি পায়। মামলার বাদী জানান, আসামিরা জামিনে বেরিয়ে মামলা তুলে নিতে প্রাণনাশের হুমকি দিয়েছে। এছাড়া আসামি রাসেল বলেছে পুলিশ দিয়ে ক্রস ফায়ারে দেওয়া হবে।

চিকিৎসকরা জানিয়েছেন, দুজনের অবস্থাই আশঙ্কাজনক। ঢামেক হাসপাতালের ২০০ নম্বর ওয়ার্ডের ১৯ নম্বর বেডে ইউসুফ চিকিৎসাধীন। তার ছোট ভাই ইউনুস কান্না জড়িত কন্ঠে জানান, গত রোববার ইউসুফের মাথায় একটি অপারেশন করা হয়েছে। যদি সুস্থ থাকেন তাহলে আগামী তিনমাস পর আরেককটি অপরেশন করতে হবে।

ঢামেক হাসপতালের চিকিৎসক ডা. মো. শফিকুল কবির খান সাংবাদিকদের জানান, ইউসুফের মাথায় প্রচন্ড আঘাতে খুলির কিছু অংশ অকেজো হয়েছে এবং অপারেশন করে সেটি ফেলে দেওয়া হয়েছে। সুস্থ হয়ে উঠলে ওই জায়গায় কৃত্তিম খুলি প্রতিস্থাপন করা হবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত