প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বগুড়ায় সাবেক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে জালিয়াতির অভিযোগ (ভিডিও)

হামিম আহসান: বগুড়ার ধুনট উপজেলার মথুরাপুর ইউনিয়নের গরীব মানুষদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বন্ধুচুলা,বয়স্ক ভাতা, বিধবাভাতাসহ নানা প্রলোভন দেখিয়ে প্রায় দুই হাজার লোকের আঙ্গুলের ছাপসহ জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর নেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে সাবেক ইউপি সদস্য ও বিএনপি নেত্রী জমিলা খাতুনের বিরুদ্ধে। এর মধ্যে একজন তার মোবাইলের নতুন সিম ওঠাতে গিয়ে জানতে পারে তার ৫টি সিম ওঠানো হয়ে গেছে। জানা যায় ৮টি গ্রামের প্রায় ২০ হাজার সিম উঠিয়ে নিয়েছে চক্রটি।

গত তিন মাস ধরে এই ইউনিয়নসহ পার্শ্ববর্তী চৌকিবাড়ী ইউনিয়নে এই প্রলোভন দেখিয়ে প্রায় দুই হাজার লোকের আঙ্গুলের ছাপসহ জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর নেয় চক্রটি।

এলাকাবাসী জানান, আমাদের সিম ও আঙুলের ছাপ নিয়েছে। এখন আমরা কোন বিপদে পড়ি সেটা বুঝতে পারছি না।

সিম বিক্রেতারা বলেন, কয়েকজনের নাম চেক করে দেখেছি প্রত্যেকের নামেই পাঁচ থেকে সাতটি সিম।

এলাকার মানুষদের ক্ষতির হাত থেকে বাঁচাতে অতিসত্বর বিষয়টি তদন্ত করে সিমগুলো বন্ধসহ দোষীদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন মথুরাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হারুনুর রশিদ সেলিম।

তিনি বলেন, ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে আমি অত্যন্ত উদ্বিগ্ন। আমি দাবি জানাচ্ছি সরকার যাতে অতি দ্রুত এই সিমগুলো বন্ধ করে দেয়।

২৫ জানুয়ারি জমিলা খাতুন ও ফরিদা বেগমসহ অজ্ঞাত আরও ৩ জনের বিরুদ্ধে ধুনট থানায় মামলা হয়েছে। জড়িতদের মধ্যে স্থানীয় দুজন নারীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

বগুড়ার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সনাতন চক্রবর্তী বলেন, একটি সংঘবদ্ধ চক্র এলাকাবাসীদের নামে সিমের রেজিস্ট্রেশন করিয়ে নিয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে।

ইটকল নামের একটি সংস্থা থেকে বন্ধুচুলা দেয়ার কথা বলে ধুনট উপজেলা মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা জমিলা খাতুনসহ সংঘবদ্ধ চক্রটি। ৩০টি ইটকলের বন্ধু চুলাও বিতরণ করেছে চক্রটি।

সূত্র: সময়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত