প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

`কালবৈশাখির তাণ্ডবের কবলে পড়তে পারে রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো’

জুয়াইরিয়া ফৌজিয়া: ক্রমেই কঠিন হয়ে উঠছে মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়া রোহিঙ্গাদের জীবনযাত্রা। কারণ সামনে মার্চ-এপ্রিলে কালবৈশাখি ঝড়ে বন্যা আর ভূমিধসের কবলে পড়তে পারে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলো। পাশাপাশি দেখা দিতে পারে কলেরা, ডায়রিয়া ও টাইফয়েডের মতো পানিবাহিত রোগের প্রকোপ। আর এমন সতর্কবার্তা দিয়েছে জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর।

প্রচন্ড শীতে রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ছড়িয়ে পড়ছে ডিপথেরিয়ার প্রকোপ। আর এরই মধ্যে এই রোগে প্রাণ হারিয়েছে শিশুসহ অন্তত ৩০ জন। পাশাপাশি সনাক্ত করা হয়েছে প্রায় ৪ হাজার রোগী, যার বেশির ভাগই শিশু। ছোঁয়াচে হওয়ায় কক্সবাজারের স্থানীয় বাসিন্দাদের মাঝেও রোগটি ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে।

সেভ দ্য চিলড্রেনের কর্মকর্তা সিমোর বলেন, গত বছর থেকেই কয়েক হাজার শরণার্থী ডিপথেরিয়ায় আক্রান্ত হয়েছে। পাশাপাশি অন্যান্য পানিবাহিত রোগও ছড়িয়েছে এই ক্যাম্পে।

এমএসএফের জরুরী সমন্বয়কারী কেট নোলান বলেন, ডিপথেরিয়া ছোঁয়াচে রোগ। তবে ভ্যাকসিন দিয়ে এটি রোধ করা সম্ভব। প্রথম দফায় ৩ লাখ রোহিঙ্গা শিশুকে ভ্যাকসিন দেয়া হয়েছে। রোগটি যেন ক্যাম্প থেকে আশপাশে ছড়িয়ে না পড়ে সে চেষ্টাই করছি আমরা।
জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক সংস্থা ইউএনএইচসিআর বলেন, পাহাড় কেটে বসতি গড়ায় ভ‚মিধ্বসের আশঙ্কা করা হচ্ছে। আশঙ্কা করা যাচ্ছে বিশ শতাংশ ক্যাম্পই পানির নিচে তলিয়ে যেতে পারে।

শুধু তাই নয় আন্তর্জাতিক দাতা সংস্থাগুলোর শঙ্কা, বন্যার ফলে কলেরা-ডায়রিয়ার মত পানিবাহিত রোগের প্রাদুর্ভাব বাড়বে।

ইউএনএইচসিআরের রিচার্ড এভানস বলেন, আশ্রয় শিবিরের প্রায় এক লাখ রোহিঙ্গা সরাসরি বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে। বাকিরাও কমবেশি বিভিন্নভাবে আক্রান্ত হবে।

সূত্র : চ্যানেল টোয়েন্টিফোর

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত