প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিচারবিভাগের বিবেক দেখার অপেক্ষায় মানুষ : আমীর খসরু

শাহানুজ্জামান টিটু : দুর্নীতি মামলায় বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে রায় দেখতে নয়, বরং বিচারবিভাগের বিবেক বিতারিত হয়েছে কী না-মানুষ সেটি দেখতে চায়। এই মন্তব্য করেছেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

শনিবার দুপুরে রাজধানীর সেগুনবাগিচায় ঢাকা রিপোটার্স ইউনিটিতে এক আলোচনা সভায় তিনি একথা বলেন। ‘জীবনের নিরাপত্তা ও আইনের শাসন’ শীর্ষক এই গোলটেবিল আলোচনা সভার আয়োচন করে ‘দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলন’।

আমীর খসরু বলেন, যদি প্রমাণিত হয় বিচার বিভাগের বিবেক প্রতারিত হয়েছে, তাহলে বাংলাদেশের মানুষের আর কোন কিছুর উপর আস্থা রাখার কোন সুযোগ থাকবে না। এরপর যা হওয়ার এদেশের মানুষ সিদ্ধান্ত নেবে।

রায়ের আগেই তা নিয়ে ক্ষমতাসীনদের দেয়া বক্তব্যের সমালোচনা করেন বিএনপির এই নেতা। বলেন, ৮ তারিখ কি রায় হবে সেটা বিচার বিভাগের যিনি বিচারক আছেন, তিনি বলার আগে দেশের সরকার প্রধান থেকে শুরু করে তার মন্ত্রী সভার লোকজন এবং নির্বাহী বিভাগে যারা বিভিন্ন সংস্থায় জড়িত, তাদের মন্তব্যের মাধ্যমে তারা পরিস্কার করে দিয়েছে। সুতরাং বিচারকের আর কিছু বলা বাকি নাই। বিচারকের এখন আর কোন কাজ নাই। তার কাজটা রাষ্ট্র প্রধান, তার মন্ত্রী পরিষদ নির্বাহী বিভাগের বিভিন্ন সংস্থার লোকজন করে দিয়েছে।

ক্ষমতাসীনরা রাষ্ট্রের প্রত্যেকটি অঙ্গকে সম্পূর্ণভাবে কুক্ষিগত করে বলেও অভিযোগ করেন তিনি। বলেন, রাষ্ট্রের শেষ আশ্রয়স্থল বিচার বিভাগকেও সম্পূর্ণভাবে কুক্ষিগত করার চেষ্টা করছে। যার ফলশ্রুতিতে ৮ ফেব্রয়ারি আজকে দেশের মানুষের সামনে বড় দিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। খালেদা জিয়ার রায় নিয়ে সরকারের কর্মকান্ডে ভীতি প্রতিফলিত হচ্ছে মন্তব্য করে তিনি বলেন, তারা এখন বিভিন্ন জেলায় জেলায় ওয়ার্ডে ওয়ার্ডে সভা করছে এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী তার হুংকার দিচ্ছেন। কারণ তাদের মধ্যে একটা ভয় ঢুকে গেছে। একটা রায় হবে তাতে সরকারের লোকজনের নতুন করে সভা সমাবেশ করার প্রয়োজন কি? স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর হুংকার দেয়ার প্রয়োজন কি?

আলোচনা সভায় প্রধান আলোচকের বক্তব্যে বিএনপির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘৮ ফেব্রয়ারি মুক্তিযুদ্ধ সত্য না মিথ্যা এটা প্রমাণ হবে। বেগম জিয়ার একটাই শুধু দোষ তিনি কেন গণমানুষের পক্ষে আছেন গণতন্ত্রের পক্ষে আছেন স্বাধীনতা সার্ভভৌমত্বের পক্ষে কাজ করছেন। এটি শুধু তার দোষ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত