প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রজাতন্ত্র দিবসে পাক রক্ষীদের মিষ্টি পাঠায়নি বিএসএফ

রাশিদ রিয়াজ : পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে ক্রিকেট থেকে শুরু করে সিনেমা বা সাংস্কৃতিক সম্প্রীতির কমতি ছিল না কোনো কালেই। কিন্তু হালে সে অবস্থার ব্যাপক বদল হয়েছে। ভারতের ৬৯তম প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে পাক রেঞ্জারদের সঙ্গে মিষ্টি বিনিময়ে রাজি হয়নি বিএসএফ।

গত বুধবার প্রজাতন্ত্র দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশের বর্ডার গার্ডস-দের সঙ্গে ফুলবাড়ি সীমান্তে মিষ্টি বিনিময় করলেও পাক রেঞ্জারদের সঙ্গে এই বহু প্রচলিত রীতি পালনে অসম্মত হয় বিএসএফ।

দীর্ঘ কাল যাবত গড়ে ওঠা রেওয়াজ মেনে স্বাধীনতা দিবস ও প্রজাতন্ত্র দিবসে পরস্পরকে শুভেচ্ছা এবং মিষ্টি বিতরণ করতেন ভারত ও পাকিস্তানের সীমান্তরক্ষীরা। দুই রাষ্ট্রের মধ্যে সম্প্রীতি ও সৌহার্দ্য বজায় রাখার উদ্দেশেই এই রেওয়াজ চালু হয়। তবে বর্তমান ভারত-পাক সম্পর্কের অবনতিতে সেই পরম্পরা মানতে রাজি হয়নি বিএসএফ।

দীপাবলির সময়েই এক বিএসএফ আধিকারিক জানিয়েছিলেন, দুই দেশের মধ্যে বড় কোনও ঝামেলা না বাধলে সীমান্তে শুভেচ্ছা ও মিষ্টি বিনিময়ের রেওয়াজ রয়েছে। তবে সম্পর্কে তিক্ততা এলে প্রথা পালন বন্ধ হতে বাধ্য।

উল্লেখ্য, ২০১৬ সালেও জম্মু ও কাশ্মীরে নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর বিনা প্ররোচনায় পাক সেনা গুলি ও মর্টার বর্ষণ করলে বেশ কয়েকজন সীমান্তরক্ষীর মৃত্যু হলে দীপাবলি উপলক্ষে পড়শি রাষ্ট্রের সেনার সঙ্গে মিষ্টি বিনিময় নিয়ে নিজেদের আপত্তির কথা জানায় বিএসএফ। এই সময়

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত