প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সাবেক অর্থমন্ত্রী কিবরিয়া হত্যার ১৩ বছর

প্রতিবেদক: সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এ এম এস কিবরিয়া হত্যার ১৩ বছর শনিবার(২৭ জানুয়ারি)। ২০০৫ সালের এই দিনে হবিগঞ্জের সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে গ্রেনেড হামলায় তিনিসহ ৫ জন নিহত এবং শতাধিক মানুষ আহত হন। এখনো মামলার অর্ধেক সাক্ষীর সাক্ষ্যও নিতে পারেনি আদালত। রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলছেন, সাক্ষী ও আসামিদের সময়মতো হাজির করতে না পারাতেই বিচার কাজে দেরি হচ্ছে।

হত্যাকাণ্ডের সাড়ে ৯ বছর পর সম্পূরক চার্জশিট দাখিলের মাধ্যমে বিচার কাজ শুরু হয়।

রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী বলছেন, অধিকাংশ আসামি অন্য মামলার আসামি হওয়ায় তাদের হাজির করা নিয়ে জটিলতা দেখা দিচ্ছে। এছাড়া নানা কারণে সাক্ষীদেরও সময়মতো পাওয়া যাচ্ছে না। ১৭১ সাক্ষীর মধ্যে সাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে মাত্র ৪৩ জনের।

কয়েক দফা তদন্ত শেষে সাবেক স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী লুৎফুজ্জামান বাবর, খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী, সিলেটের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী, হবিগঞ্জের মেয়র জি কে গউছ ও হরকাতুল জিহাদ নেতা মুফতি হান্নানসহ ৩২ জনের বিরুদ্ধে দু’টি মামলারই চার্জশীট দেন তদন্ত কর্মকর্তা।

মামলার বাদী মোহাম্মদ আব্দুল মজিদ খান এমপি জানিয়েছেন, মোট ১শ’ ৭১ জন সাক্ষী থাকলেও নানা আইনি জটিলতায় মাত্র ২৪ জন সাক্ষী আদালতে সাক্ষ্য দিতে পেরেছেন।

২০০৫ সালের ২৭ জানুয়ারি হবিগঞ্জ সদর উপজেলার বৈদ্যের বাজারে স্থানীয় আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভায় যোগ দেন সাবেক অর্থমন্ত্রী শাহ এএমএস কিবরিয়া। সভা শেষে ফেরার সময় দুর্বৃত্তদের গ্রেনেড হামলায় কিবরিয়া ও তার ভাতিজা শাহ মঞ্জুর হুদাসহ নিহত হন ৫ জন। আহত হন ৭০ জন।

শাহ এ এম এস কিবরিয়ার মৃত্যুবার্ষিকীতে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে আওয়ামী লীগ ও তার অঙ্গসংগঠন এবং কিবরিয়া স্মৃতি পরিষদ। সূত্র: ইনডিপেনডেন্ট টিভি, চ্যানেল আই

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত