প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সংবাদমাধ্যমের সমালোচনার সময় দর্শকদের দুয়োধ্বনি পেলেন ট্রাম্প

ডেস্ক রিপোর্ট : সংবাদমাধ্যমের প্রতি নিজের ক্ষোভ আবারও উগরে দিলেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। তবে এবার দর্শকসারি থেকে ট্রাম্পের এ ক্ষোভের জবাবে দুয়োধ্বনি দেওয়া হয়। আর এই দর্শকসারিতে বসা ছিলেন বিশ্বের বিভন্ন প্রান্তের অভিজাত ব্যবসায়িক শ্রেণির প্রতিনিধিরা।

একদিন আগে বৃহস্পতিবার সুইজারল্যান্ডের অবকাশ কেন্দ্র ড্যাভোসে বিশ্ব অর্থনৈতিক সম্মেলনে উষ্ণ অভ্যর্থনা পেয়েছিলেন ট্রাম্প। কিন্তু ‘নোংরা, ভুয়া ও নিচ’ সংবাদমাধ্যমের সমালোচনা করতে গিয়ে মুদ্রার উল্টো পিঠটাও দেখলেন বিশ্বের প্রভাবশালী এই প্রেসিডেন্ট। দর্শকরা দুয়োধ্বনির পাশাপাশি হিসহিস শব্দ করে ট্রাম্পকে বক্তব্য দিতে বাধা দেন। অবশ্য স্কাই নিউজ জানায়, দর্শকদের এই দুয়োধ্বনি ট্রাম্পকে নাকি সংবাদমাধ্যমকে লক্ষ্য করেছিল তা স্পষ্ট হওয়া যায়নি।

সংবাদমাধ্যমের সমালোচনা করে ট্রাম্প বলেন, রাজনীতিতে আসার আগে বুঝিনি সংবাদমাধ্যম কতোটা খারাপ, নিচ, ব্যাধিযুক্ত ও মিথ্যায় ভরপুর হতে পারে।

২০১৭ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্টের দায়িত্ব নেওয়ার পর থেকেই ক্রমাগত সংবাদমাধ্যমকে আক্রমণ করে গেছেন ট্রাম্প। আবাসন ব্যবসা থেকে রাজনীতিতে আসা ট্রাম্প সংবাদমাধ্যমকে ভুয়া আর উদ্দেশ্যমুলক খবর প্রকাশের জন্য অভিযুক্ত করতে থাকেন। চলতি মাসে তিনি সংবাদমাধ্যমের জন্য বিদ্রুপাত্মক ‘ফেক নিউজ অ্যাওয়ার্ড’ও ঘোষণা করেছেন।

ড্যাভোসে দেওয়া বক্তব্যে ট্রাম্প বলেন, অতীতে আমাদের অভিবাসন ব্যবস্থা স্থবির ছিল। আমরা অবশ্যই পরিবার সম্প্রসারণের এই নীতির অবসান ঘটিয়ে মেধাভিত্তিক নীতি প্রবর্তন করবো। এর মাধ্যমে আমেরিকায় তাদেরই স্বাগত জানানো হবে যারা আমাদের অর্থনীতিতে অবদান রাখতে পারবে। নিজেদের অর্থনৈতিকভাবে স্বাবলম্বী করতে পারবে। সর্বোপরি আমাদের দেশকে শক্তিশালী করতে পারবে।

ট্রাম্প বলেন, বিশ্বকে সন্ত্রাস আর প্রতিদ্বন্দ্বিতামুলক শক্তি থেকে নিরাপদ রাখতে আমরা আমাদের বন্ধু এবং মিত্রদের নিজেদের প্রতিরক্ষায় বিনিয়োগ বাড়ানোর আহ্বান জানাচ্ছি। যৌথ নিরাপত্তায় প্রত্যেকের সমান অংশীদারিত্ব জরুরি বলে ও মত দেন তিনি।

১১০ টি দেশের তিন হাজারেরও বেশি অংশগ্রহণকারী ড্যাভোসে ওই সম্মেলনে যোগ দেন। এছাড়া এই সম্মেলনে ছিলেন ৭০ জন রাষ্ট্র ও সরকারপ্রধান, ৪৫টি আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রধান। সূত্র : বাংলাট্রিবিউন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত