প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পিরোজপুরে চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে শীতকালীন সবজি

পিরোজপুর প্রতিনিধি: সরবরাহে কমতি না থাকলেও পিরোজপুরে চড়া সব ধরনের সবজির দাম। বেগুন, শিম, গাজর টমেটোসহ মানভেদে বেশিরভাগ সবজি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৬০ টাকা দরে। বিক্রেতাদের দাবি ঘন কুয়াশায় সবজির উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় সরবরাহ সংকটে দাম বেড়েছে। যদিও ক্রেতারা বলছেন, তদারকি থাকায় বাজারে সবজির কৃত্রিম সংকট তৈরি করে বেশি দামে বিক্রি করছে ব্যবসায়ীরা।

শীতের সবজির এখন ভরা মৌসুম। দোকানগুলোতে থরে থরে সাজানো নানা ধরনের সবজি। তবু পিরোজপুরের খুচরা বাজারগুলোতে ফুলকপি, বাধা কপি, শিম বেগুনসহ বেশিরভাগ সবজি বিক্রি হচ্ছে ৫০-৬০ টাকা দরে। আর পেয়াজের দামও আকাশ ছোঁয়া। বিক্রেতাদের দাবি, বৈরি আবহাওয়ায় উৎপাদন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় নেতিবাচক প্রভাব পড়েছে দামে।

বিক্রেতারা জানান, ‘আলু ২৫ টাকা কেজি, পেঁয়াজ ৬৫ টাকা আমাদের মতো সাধারণ জনগণ বাঁচবে কীভাবে।’

অন্য আরেকজন জানান, ‘আগে যে টাকা দিয়ে কাঁচা তরকারি ক্রয় করা যেতে, এখন সেই টাকা দিয়ে একটা ক্রয় করা যায়।’

ভরা মৌসুমে সবজির এমন বাড়তি দামে বিপাকে পড়ছেন শ্রমজীবী ও নিম্ন আয়ের মানুষ। দাম বাড়ার পেছনে বিক্রেতাদের দাবিকে অযৌক্তিক বলছেন ক্রেতারা।

বাজারের ক্রেতারা জানান, আমরা আলু ২২ থেকে ২৫ টাকা বিক্রি করতেছি, শালগম ৩০ টাকা। বাজারে সবজির সঙ্কট।

অন্য আরেকজন জানান, আগে ব্যাপারীরা দিনে ৫ থেকে ৬ গাড়ি মাল ঢোকাতো এখন তারা এক থেকে দুই থেকে গাড়ি মাল ঢোকায়।

যথাযথ মনিটরিং এর মাধ্যমে মধ্যস্বত্ত্ব ভোগীদের দৌরাত্ব কমানো গেলে দাম নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব হবে বলে মনে করেন ভোক্তারা।

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত