প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বইমেলায় নেওয়া হচ্ছে নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা: ডিএমপি কমিশনার

সুজন কৈরী: আসন্ন অমর একুশে বইমেলা উপলক্ষে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) নিচ্ছিদ্র নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করছে বলে জানিয়েছে ডিএমপি কমিশনার মো. আছাদুজ্জামান মিয়া

বৃহস্পতিবার সকালে ডিএমপি সদর দফতরে বইমেলার নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়ে আয়োজিত সমন্বয় সভায় তিনি এ কথা জানান।

প্রতিবছর অমর একুশে বইমেলার আয়োজন করে বাংলা একাডেমি। ফেব্রুয়ারি মাস জুড়ে বাংলা একাডেমি ও সোহরাওয়ার্দী উদ্যান প্রাঙ্গণে চলে এই বইমেলা।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, বইমেলার ভিতরে ও বাহিরে পর্যাপ্ত সংখ্যক সাদা পোষাকের পাশাপাশি ইউনিফর্মে পুলিশ থাকবে। সিসিটিভি দিয়ে মেলা প্রাঙ্গণসহ চারপাশে সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষন করা হবে। ইভটিজিং ও অনাকাঙ্খিত ঘটনা প্রতিরোধে থাকবে পুলিশের ফুট ও মোটরসাইকেল পেট্রলিং। থাকবে ওয়াচ টাওয়ার, ফায়ার টেন্ডার ও প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা। বইমেলার আশপাশ হকার মুক্ত করা হবে। বাংলা একাডেমির স্টীকার ব্যতীত কোন গাড়ি মেলা প্রাঙ্গণে প্রবেশ করতে পারবে না।

তিনি আরও বলেন, যে কোনো ধরণের অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে মেলায় প্রবেশ ও বাহিরের জন্য আলাদা গেইট থাকবে। প্রত্যেক দর্শনার্থীকে আর্চওয়ে ও মেটাল ডিটেক্টর দ্বারা তল্লাশীর মাধ্যমে মেলায় প্রবেশ করতে হবে। মেলায় দর্শনার্থীদের বিনামূল্যে বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করবে ডিএমপি।

ডিএমপি কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, যদি কোন লেখক ও প্রকাশকের বিশেষ নিরাপত্তার প্রয়োজন হয় তাহলে মেলায় স্থাপিত পুলিশ কন্ট্রোল রুমে যোগাযোগ করলে তাদের নিরাপত্তা প্রদান করা হবে। যেকোন নতুন বই মেলায় আসলে বাংলা একাডেমি তা যাচাই বাচাই করে দেখবেন। যাতে করে কোন বই ধর্মীয়, সামাজিক ও জাতীয় মূল্যবোধে আঘাত না করতে পারে। মেলার নিরাপত্তা বিধানে যার যে দায়িত্ব তাকে সঠিকভাবে পালনের আহবান জানান ডিএমপি কমিশনার।

এ সময় সভায় ডিএমপির উর্ধ্বতন কর্মকর্তাসহ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর, বাংলা একাডেমি কর্তৃপক্ষ, লেখক ও প্রকাশক সংস্থার প্রতিনিধি, সরকারী বিভিন্ন সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠানের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র: ডিএমপি নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত