প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মিশরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ালেন একমাত্র বিরোধী নেতা

আব্দুর রাজ্জাক: ‘মিশরকে নতুন করে গড়ার দিন শেষ হয়ে গেছে, আমরা নিশ্চিতভাবেই দ্বিতীয়বারের মত দেশ ধ্বংসের জন্য অপেক্ষা করছি,’ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়িয়ে ক্ষোভের সঙ্গে কথাগুলি বলছিলেন আগামী প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জেনারেল আব্দেল ফাত্তাহ-আল-সিসি’র এক মাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আইনজীবী খালেদ আলী।

অনুষ্ঠিতব্য প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের অন্যতম শক্তিশালী প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক সেনাবাহিনীর চিফ অফ স্টাফ সামি আনানকে অন্যায়ভাবে গ্রেফতারের অভিযোগ করে গত বুধবার এক বিবৃতি প্রকাশ করেন খালেদ আলী ।

তিনি আরও বলেন, জেনারেল সিসি তার দ্বিতীয় মেয়াদে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দেয়ার পর থেকেই তার সমর্থকরা আলীকে অব্যাহতভাবে হুমকি দিয়ে আসছে। তিনি নির্বাচন কমিশনের পক্ষপাতিত্বমূলক ভূমিকা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন।

নির্বাচন কমিশন এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, তারা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক পরিবেশ ও স্বচ্ছতা নিশ্চিত করতে বদ্ধ পরিকর। প্রেসিডেন্ট অফিস ও সরকারি গণমাধ্যমে কিছুই জানানো হয়নি।

এদিকে জাতিসংঘের এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে যে, আনানের গ্রেফতারের খবরের তারা উদ্বিগ্ন। তারা প্রতিদ্বন্দ্বিতামূলক, শান্তিপুর্ণ, বিশ্বাসযোগ্য ও অন্তর্ভুক্তিমূলক পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য সিসি সরকার ও নির্বাচন কমিশন বরাবর আবেদন জানায়।

উল্লেখ্য, সাবেক সেনাবাহিনীর কমান্ডার জেনারেল সিসি ২০১৪ সালে ‘সামরিক ক্যু’ দ্বারা মিশরের একমাত্র গণতান্ত্রিক প্রেসিডেন্ট সাইয়্যেদ বদিউজ্জামান মুরসি সরকারকে উৎখাত করে। পরে একটি তথাকথিত নির্বাচনের মাধ্যমে নিজেকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত করেন। রয়টার্স

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত