প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নেইমারকে ঘিরে ‘সর্বোচ্চ’ সতর্কতায় পিএসজি

স্পোর্টস ডেস্ক: ফুটবল দুনিয়া কাঁপানো দলবদলে রেকর্ড গড়ে পিএসজিতে গেছেন নেইমার। ফরাসি জায়ান্টদের হয়ে খেলছেন ছয় মাসও পূর্ণ হয়নি। এরইমধ্যে ব্রাজিলিয়ান ফরোয়ার্ডকে নিয়ে দুশ্চিন্তার মহাসাগরে হাবুডুবু খাচ্ছে দলটি! প্রভাবশালী দুই ফরাসি খেলাধুলা বিষয়ক সংবাদ পত্রিকা এল কুইপে ও লা প্যারিসিয়ান জানাচ্ছে, নেইমারকে ঘিরে সর্বোচ্চ সতর্কতায় আছে পিএসজি।

কারণটা আর কিছুই নয়, নেইমার ও রিয়াল মাদ্রিদের গোপন আঁতাতের খবর। ২০১৮ গ্রীষ্মকালীন দলবদলে লস ব্লাঙ্কোস সভাপতি ফ্লোরেন্টিনো পেরেজের প্রধান নজর যে ব্রাজিলিয়ান ওয়ান্ডার কিডের দিকেই সেটা এখন ‘ওপেন সিক্রেট’! এল কুইপে ও লা প্যারিসিয়ান ফলাও করে ছেপেছে যে, নেইমারের কিছু আচরণও উদ্বিগ্ন করে তুলেছে পিএসজি মালিক নাসের আল খেলাফিকে।
নেইমার কেন্দ্রিক আলোচনা উস্কে দিয়েছে লিগ ওয়ানে দিজোঁর বিপক্ষে ম্যাচটি। ওই ম্যাচে হ্যাটট্রিক করার পরও সতীর্থ এডিনসন কাভানিকে পেনাল্টি নিতে না দিয়ে নিজে স্পটকিক করেছেন নেইমার। অথচ কাভানি তখন একটি মাত্র গোল পেলেই হয়ে যেতেন পিএসজির হয়ে সর্বাধিক গোলস্কোরার। ভেঙে দিতেন জ্লাতান ইব্রাহিমোভিচের রেকর্ড।
সেই ম্যাচে গ্যালারি থেকে নিজ সমর্থকদের দুয়ো ভেসে এসেছে নেইমারের দিকে। লা প্যারিসিয়ান বলছে, বিশেষ কোন উদ্দেশ্য নিয়েই এমনটা করেছেন তিনি। তাতে কাভানির সঙ্গে দ্বন্দ্বের ছাইচাপা আগুন যেন আবারও জ্বলে উঠেছে নতুন করে। কোচ উনাই এমেরির সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের চেষ্টাও খুব একটা দেখা যাচ্ছে না ব্রাজিলিয়ানের মাঝে।

পিএসজি কর্তাদের উদ্বিগ্নতা বেড়েছে আরেকটি আলোচনার জেরে। লিগ ওয়ানের বাকি দলগুলোর অতিমাত্রায় রক্ষণাত্মক খেলা এবং বেশি বেশি ফাউলের শিকার হওয়াটা নাকি রাগিয়ে দিয়েছে নেইমারকে। সেজন্য স্প্যানিশ লা লিগা থেকে চলে আসায় আফসোসটাও আগের থেকে বেড়েছে তার।
যেহেতু অনেকটা জোর করেই ২২২ মিলিয়নে ইউরোতে বার্সেলোনা থেকে এসেছেন, তাই চাইলেই পুরনো ক্লাবে ফেরত যাওয়া সম্ভব নয় বলে ভাবছেন। সেক্ষেত্রে কেবল একটিই বিকল্প বাকি থাকে, আর একটিই স্প্যানিশ ক্লাব থাকে তাকে দলে টানার মত। সেটি রিয়াল মাদ্রিদ।
সেই পথে হাঁটার বিষয়টা এখনও দুয়ে দুয়ে চার না মিললেও পর্যায়টা অনেকটা পৌনে চারের কাছাকাছিই বলে জানাচ্ছে ফরাসি গণমাধ্যম। সেটা যেন চারে না পৌঁছায় সেজন্যই সতর্কতামূলক ব্যবস্থা নিয়ে রাখতে চান পিএসজি কর্তারা! গোল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত