প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মহিউদ্দিনের প্রশংসায় পঞ্চমুখ নাছির !

ডেস্ক রিপোর্ট : চট্টগ্রামের আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে দুজনের বিরোধ দেশজুড়ে আলোচনার বিষয়বস্তু হলেও এ বি এম মহিউদ্দিনের শোকসভায় এসে প্রয়াত নেতার প্রশংসায় পঞ্চমুখ ছিলেন আ জ ম নাছির উদ্দিন।

বুধবার রাতে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (সিসিসি) সাবেক কাউন্সিলরদের সংগঠন ‘এক্স কাউন্সিলর ফোরাম’ আয়োজিত এই শোকসভায় প্রধান অতিথি ছিলেন নাছির।

শোকসভায় সাবেক তিন মেয়র মনজুর আলম, মীর মোহাম্মদ নাছির উদ্দিন ও মাহমুদুল ইসলাম চৌধুরীকে আমন্ত্রণ জানানো হলেও তারা উপস্থিত ছিলেন না।

ফোরামের আহ্বায়ক পেয়ার মোহাম্মদের সভাপতিত্বে এই সভায় বক্তব্য রাখেন নগর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি জহিরুল আলম দোভাষ ডলফিন, সাবেক কাউন্সিলর শামসুল আলম, জামাল হোসেন, এম এ মালেক ও জাবেদ নজরুল ইসলাম, বর্তমান কাউন্সিলর হাসান মাহমুদ হাসনী, জোবাইরা নার্গিস খান, তারেক সোলায়মান সেলিম এবং মহিউদ্দিন চৌধুরীর ছোট ছেলে বোরহানুল হাসান চৌধুরী সালেহীন প্রমুখ।

শোকসভায় নাছির বলেন, “মহিউদ্দিন চৌধুরীকে মানুষ জীবদ্দশায় যেমন সম্মান করেছে, মৃত্যুর পরও একইভাবে তিনি সম্মান পাচ্ছেন। মহিউদ্দিন চৌধুরী একজন সফল রাজনীতিবিদ। বিন্দু থেকে শুরু করে তিনি বিশাল সমুদ্রে পরিণত হয়েছেন। দলের প্রশ্নে যেমন কখনও আপস করেননি, ঠিক তেমনি চট্টগ্রামের অধিকার আদায়ের প্রশ্নেও সমান্তরালভাবে আপসহীন ছিলেন। আওয়ামী লীগার হয়েও সরকারের চিন্তার বাইরে গিয়ে চট্টগ্রামবাসীর স্বার্থে ভূমিকা রেখেছেন।”

নাছির বলেন, “তিনি পেয়েছিলেন মানুষের আস্থা এবং দলের ভিতর সুদৃঢ় অবস্থান। অন্য সব দলের নেতাকর্মীর কাছেও গ্রহণযোগ্যতা পেয়েছিলেন। মানুষের সাথে সম্পৃক্ততা থাকা থেকে তিনি মুহূর্তের জন্য বিরত থাকেননি। জনপ্রতিনিধির দায়িত্ব জনতার পাশে দাঁড়ানো, জনগণ সে যেই হোক। মেয়র হিসেবে তিনি সে কাজ করেছেন।”

নাছির বলেন, “আজকে আমরা অনেকেই রাজনীতি করছি, দলের বিভিন্ন পদও ধারণ করছি। কিন্তু পদের প্রতি সুবিচার করি না। দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করি না। সে কারণে মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্যতা প্রশ্নবিদ্ধ হয়। কমবেশি সবাই আমরা এটা জানি কিন্তু আমরা করি না। জনগণের কল্যাণ সাধনই রাজনীতি। যারা সত্যিকারের কল্যাণ করে তারা জনগণের হৃদয়ে স্থান করে নেন।”

নিউজবাংলাদেশ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত