প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এদেশে ভারতীয় সিনেমা আমদানি হলে সমস্যা কোথায়? : ইফতেখার আহমেদ নওশাদ

ডেস্ক রিপোর্ট :  সৌদি আরবের মতো দেশে বিদেশি ছবি আমদানি করা হচ্ছে। সেখানে ভারতের ছবি চলছে। ছবিগুলো ট্রিমেন্ডাসভাবে চলছে, দর্শক গ্রহণ করছে। তাহলে বাংলাদেশে ভারতীয় সিনেমা আমদানি হলে সমস্যা কোথায়?

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রদর্শক সমিতির সভাপতি ও ঐতিহ্যবাহী মধুমিতা সিনেমা হলের মালিক ইফতেখার আহমেদ নওশাদ সিনেমা হল বাঁচাতে ভালো মানের ছবি ও ভারতীয় ছবি আমদানির পক্ষে এমনটাই যুক্তি দেখান।

‘ইন্সপেক্টর নটি কে’ ছবির মুক্তির উপলক্ষে বুধবার (২৪ জানুয়ারি) রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে

এক সংবাদ সম্মেলনে নওশাদ বলেন, সৌদি আরবের ৩০০ আসন বিশিষ্ট সিনেমা হলে এখন বাইরের ছবি প্রদর্শন করা হচ্ছে। আমেরিকান মাল্টি সিনেমাসকে এই দায়িত্ব দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, সৌদির দর্শকরা আবু ধাবিতে চলে যাচ্ছিল ছবি দেখতে। এতে করে সেখানকার টাকাও বাইরের দেশে চলে যাচ্ছিল। এরপর সৌদিতে ভারতীয় ছবি প্রদর্শিত হওয়ায় দর্শকরা ফিরেছে। তাহলে বাংলাদেশে ভারতীয় ছবি চললে সমস্যা কোথায়?

নওশাদ বলেন, গতবছর যতগুলো ছবি মুক্তি পেয়েছে এরমধ্যে ৩ টি চালিয়ে হল মালিকরা খুশি। বাকি ছবি চালিয়ে লোকসান গুনতে হয়েছে। এভাবে হল মালিকরা আর কত লোকসান করবে? তাই হল বাঁচাতে ভালো ছবির বিকল্প আমি দেখিনা।

তিনি আরো বলেন, মধুমিতা হলটি বন্ধ হয়ে গেলে আমার কিছুই আসবে যাবেনা। কিন্তু সারাদেশের হল মালিকরা তাদের সিনেমা হল বন্ধ করলে ইন্ডাস্ট্রির কি হবে একবার ভাবুন। অনেকবার এই কথা বলেছি। অনেকেই বিষয়টি ভুল বুঝেছে। এটাকে পজিটিভভাবে ভাবুন।

‘ইন্সপেক্টর নটি কে’ ছবির সংবাদ সম্মেলনে অন্যান্যের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন কলকাতার নায়ক জিৎ, বাংলাদেশের নুসরাত ফারিয়া, জাজ মাল্টিমিডিয়ার কর্ণধার আবদুল আজিজ, চিত্রপরিচালক কাজী হায়াত প্রমুখ।

উৎসঃ চ্যানেল আই

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত