প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাংলাদেশের সঙ্গে হাথুরুসিংহের গরম ম্যাচ বৃহস্পতিবার

এল আর বাদল : ত্রিদেশীয় ক্রিকেটের খেলা ছিল না আজ। দুই দল বাংলাদেশ আর শ্রীলঙ্কা হালকা অনুশীলন করেছে মাত্র। কিন্তু মিরপুর স্টেডিয়াম এলাকা দেখলে মনে হয়, মাঠে যেনো লড়াই চলছে বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যে। ক্রিকেট প্রিয় দর্শকের কেন এতো আনাগোনা, জানতে চাইলে ষাটোর্ধো মোয়াজ্জেম বললেন, শরীর সুস্থ থাকলে আমি কখনও বাংলাদেশ দলের খেলা দেখা হাতছাড়া করি না।

তিনি বলেন, জিম্বাবুয়ে তো আমাদের বিষয় নয়। আজ যতো লোক স্টেডিয়াম এলাকায় দেখতে পাচ্ছেন, তারা সবাই কিন্তু আমার মতোই ক্রিকেট পাগল। আরো বেশি পাগল হয়েছি কোচ হাথুরুসিংহের ইস্যুতে। উনি (হাথুরু) আমাদের দল ছেড়ে চলে গিয়ে নানাভাবে খোঁচাও দিয়েছেন। তাই বাংলাদেশের কোনো মাটিতে আমাদের বিরুদ্ধে লঙ্কানরা জিতলে কষ্ট পাবো।

মোয়াজ্জেম আরও বললেন, হাথুরু শ্রীলঙ্কা দল নিয়ে তার প্রথম অ্যাসাইনমেন্টে বাংলাদেশে এসে লিগের প্রথম খেলায় হেরেছে আমাদের কাছে। আমরা চাই, ওদের বিরুদ্ধে আমাদের প্রাপ্তির খাতা আরও সমৃদ্ধ হোক। অপ্রতিরোধ্য টাইগার সেনাদের এক নজর দেখার জন্য স্টেডিয়াম এলাকায় এতো মানুষের ভীড় বলে জানালেন মোয়াজ্জেম।

বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টায় মিরপুর স্টেডিয়ামে শুরু হতে যাওয়া বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার ম্যাচ নিয়ে দেশজুড়ে কতোটা উত্তেজনা, সেটাই প্রমাণ করে আজকের স্টেডিয়াম এলাকায় ভক্তদের সরব উপস্থিতি। সবুজ গালিচায় কে টস জিতল আর হারল সেটা আমলে নিচ্ছেন না টাইগার দলপতি মাশরাফি বিন মোর্তুজা।

তার দৃঢ় বিশ্বাস শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধে জয়ের ধারা অব্যাহত রাখতে সতীর্থরা শক্তি আর বুদ্ধিমত্তার পুরোটাই উজার করে দেবে। দলের টেকনিক্যাল ডিরেক্টর খালেদ মাহমুদ সুজন যেনো চটে আছেন লঙ্কান কোচ হাথুরুসিংহের উপর। তাকে (হাথুরু) ইঙ্গিত করে বার বারই বলছিলেন, উনি চাইবেন আমাদের আঘাত (হারানো) করতে। কিন্তু মাশরাফি, তামিম ও সাকিবরাও সোচ্ছার ওদের বিরুদ্ধে জয়ের ধারা ধরে রাখতে।

সুজন এও বলেছেন, আমরা যদি শ্রীলঙ্কাকে হারাতে পারি, তাহলে অপরাজিত চ্যাম্পিয়ন হবো। এটা আমাদের সবার দৃঢ় বিশ্বাস।

টাইগার শিবিরে আজকের ম্যাচ নিয়ে যতো প্রত্যাশার কথা বলা হোক না কেন, লঙ্কানরা কিন্তু থেমে নেই। সিরিজের ফাইনালে যেতে তারা সেরাটাই খেলবে। এই আভাস দিয়েছেন অধিনায়ক দিনেশ চান্ডিমাল। তিনি এও বলেছেন, দুই ম্যাচ হারের পর ঘুরে দাঁড়ানো অনেক কঠিন। বলতে পারেন দেয়ালে পিঠ ঠেকে গেছে আমাদের। এ অবস্থায় স্বাগতিকদের বিরুদ্ধে ম্যাচ জিততে আমরা সিংহের গর্জণই দেবো। আজ শ্রীলঙ্কা জিতলে ফাইনালে যাবে আর হেরে গেলো রান রেটে নির্ধারণ হবে জিম্বাবুয়ে ও শ্রীলঙ্কার ভাগ্য।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত